প্রশ্নকর্তা ও মডারেটর নিয়োগে আরও সতর্ক হতে হবে : শিক্ষামন্ত্রী

জাতীয় জাদুঘরে কবি সুফিয়া কামাল মিলনায়তনে ‘৭১-এ গণহত্যার জাতিসংঘের স্বীকৃতি চাই’ শীর্ষক আলোচনা সভায় শিক্ষামন্ত্রী।
জাতীয় জাদুঘরে কবি সুফিয়া কামাল মিলনায়তনে ‘৭১-এ গণহত্যার জাতিসংঘের স্বীকৃতি চাই’ শীর্ষক আলোচনা সভায় শিক্ষামন্ত্রী।ছবি : কালবেলা

পাবলিক পরীক্ষার প্রশ্নকর্তা ও মডারেটর নিয়োগে আরও সতর্ক হতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। আজ বুধবার জাতীয় জাদুঘরে কবি সুফিয়া কামাল মিলনায়তনে ‘৭১-এ গণহত্যার জাতিসংঘের স্বীকৃতি চাই’ শীর্ষক আলোচনা সভা শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে শিক্ষামন্ত্রী এসব কথা বলেন।

এইচএসসির বাংলা প্রথম পত্রে সাম্প্রদায়িক উসকানিমূলক প্রশ্ন করার ব্যাপারে সাংবাদিকরা জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমরা কাদেরকে প্রশ্নকর্তা ও মডারেটর হিসেবে দায়িত্ব দিচ্ছি, সেই দায়িত্ব দেওয়ার ক্ষেত্রে আমাদের আরও সতর্ক হতে হবে। সব বোর্ডকে আরও সতর্ক হতে হবে।’

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘এবারের এইচএসসির বাংলা বিষয়ের প্রশ্ন নিয়ে যে বিতর্ক উঠেছে তা আমরা ইতোমধ্যে চিহ্নিত করেছি। এই বিষয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। প্রশ্ন সেট করেছেন কারা, প্রশ্ন মডারেট করেছেন কারা সেগুলোও চিহ্নিত করা হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘আমাদের তদন্ত চলছে। এটা অবহেলাজনিত না ইচ্ছাকৃতভাবে করা হয়েছে সেটা দেখা হচ্ছে। যদি অবহেলা থাকে কিংবা ইচ্ছাকৃত হয় দুটির কোনোটিই ছেড়ে দেওয়ার সুযোগ নেই। আমরা সেই মোতাবেক ব্যবস্থা গ্রহণ করব।’

দীপু মনি বলেন, ‘আমাদের প্রশ্নকর্তা ও প্রশ্ন মডারেট যারা করেন তাদেরকে বিভিন্ন প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়, নির্দেশিকা দেওয়া হয়। তারপরও কেউ যদি এটা করেন সেটা চরম অবহেলা অথবা ইচ্ছাকৃত। আমরা সিদ্ধান্ত নেব, তাদের বিরুদ্ধে কী ধরনের ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

জাতীয় জাদুঘরে কবি সুফিয়া কামাল মিলনায়তনে ‘৭১-এ গণহত্যার জাতিসংঘের স্বীকৃতি চাই’ শীর্ষক আলোচনা সভায় শিক্ষামন্ত্রী।
এইচএসসিতে সাম্প্রদায়িক প্রশ্ন : নেওয়া হচ্ছে ব্যবস্থা

এ সম্পর্কিত খবর

No stories found.
kalbela.com