তাড়াশের ঐতিহ্যবাহী দই মেলা কাল

তাড়াশ ঈদগাহ মাঠে দই নিয়ে আসা ঘোষেরা।
তাড়াশ ঈদগাহ মাঠে দই নিয়ে আসা ঘোষেরা।ছবি : কালবেলা

সিরাজগঞ্জের তাড়াশে আড়াইশ বছরের ঐতিহ্যবাহী স্বরস্বতী পূজা উপলক্ষে আগামীকাল বৃহস্পতিবার দিনব্যাপী দইয়ের মেলা অনুষ্ঠিত হবে। আজ বুধবার বিকেলে তাড়াশ ঈদগাহ মাঠে ঘোষদের দই আসার মধ্য দিয়ে মেলার কার্যক্রম শুরু হয়েছে। মেলাকে ঘিরে এলাকায় সাজসাজ রব পড়ে গেছে।

বৃহস্পতিবার সকালে শুরু হতে যাওয়া দিনব্যাপী ওই মেলায় দইয়ের পাশাপাশি ঝুড়ি, মুড়ি, মুড়কি, চিড়া, মোয়া, বাতাসা, কদমা, খেজুর গুড়সহ বাহারি সব খাবার বিকিকিনি হবে।

তাড়াশের দই মেলায় চলছে বিকিকিনি।
তাড়াশের দই মেলায় চলছে বিকিকিনি।ছবি : কালবেলা

ঐতিহ্যবাহী চলনবিল অঞ্চল তাড়াশের দই মেলা নিয়ে রয়েছে নানা গল্প কাহিনি। তাড়াশ উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি রজত ঘোষ কালবেলাকে জানান, জমিদারি আমলে তাড়াশের তৎকালীন জমিদার পরম বৈঞ্চব বনোয়ারী লাল রায় বাহাদুর প্রথম রশিক রায় মন্দিরের মাঠে দই মেলার প্রচলন করেছিলেন।

মেলায় আনা দইয়ের নামগুলো ভিন্ন ভিন্ন হয়। সাদ অনুযায়ী এগুলোর নাম হয় ক্ষীরসা দই, শাহী দই, চান্দাইকোনা, শেরপুরের দই, বগুড়ার দই, টক দই, ডায়াবেটিক, শ্রীপুরী দই ইত্যাদি।

মহাদেব ঘোষ, বিমল ঘোষ, সুকোমল ঘোষসহ একাধিক ঘোষের সাথে কথা বলে জানা যায়, সাম্প্রতিক সময়ে দুধের দাম, জ্বালানি, শ্রমিক খরচ, দই পাত্রের মূল্য বৃদ্ধির কারণে দইয়ের দামও কেজিতে ৩০ থেকে ৩৫ টাকা বেড়েছে। তবে সব দই বিক্রি হয়ে যায়।

এ সম্পর্কিত খবর

No stories found.
logo
kalbela.com