কৃষ্ণা, সাবিনা, সানজিদাদের অর্থ চুরির ঘটনা তদন্তে পুলিশ, র‍্যাব, এপিবিএন

সাফের ট্রফি হাতে অধিনায়ক সাবিনা খাতুনসহ অন্যরা।
সাফের ট্রফি হাতে অধিনায়ক সাবিনা খাতুনসহ অন্যরা।ছবি : সংগৃহীত

কৃষ্ণা রানী সরকার, সানজিদা আক্তার ও শামসুন নাহারের লাগেজ থেকে অর্থ চুরির ঘটনায় মতিঝিল ও বিমানবন্দর থানায় দুটি সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে। পাশাপাশি র‍্যাব, এপিবিএনসহ সরকারের বিভিন্ন সংস্থা এ ঘটনার তদন্তে কাজ শুরু করেছে।

আনুষ্ঠানিক অভিযোগ পাওয়ার পর সিভিল অ্যাভিয়েশন কর্তৃপক্ষ বিষয়টি নিয়ে দ্রুত তদন্ত করে। সিভিল অ্যাভিয়েশনের নির্বাহী পরিচালক গ্রুপ ক্যাপ্টেন মো. কামরুল ইসলাম এ প্রসঙ্গে জানিয়েছেন, পাঁচটি সিসি টিভির ফুটেজ পর্যবেক্ষণ করে তারা দেখেছেন বিমানবন্দরে এমন কোনো ঘটনা ঘটেনি।

সাফের ট্রফি হাতে অধিনায়ক সাবিনা খাতুনসহ অন্যরা।
‘বিমানবন্দরে টাকা চুরি ও লাগেজ ভাঙার ঘটনা ঘটেনি’
সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে সংস্থাটি জানিয়েছে, বিমান অবতরণের পর থেকে প্রতিটি স্থানের সিসি টিভির ফুটেজ বিশ্লেষণ করে ফুটবলারদের লাগেজ ভাঙা কিংবা চুরির কোনো প্রমাণ পাননি। লাগেজগুলো অক্ষত অবস্থায় বুঝে নিয়ে বাফুফের প্রটোকল অফিসার ও দুজন টিম অফিসিয়াল দুটি কাভার্ডভ্যানে করে সবগুলো লাগেজ নিয়ে বিমানবন্দর এলাকা ত্যাগ করেন।
বিমানবন্দরে জনস্রোত ঠেলে বেরিয়ে আসছেন নারী ফুটবলাররা।
বিমানবন্দরে জনস্রোত ঠেলে বেরিয়ে আসছেন নারী ফুটবলাররা।ছবি : সংগৃহীত

এদিকে জিডি দায়েরের পর এ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের একাধিক ইউনিট, র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ান (র‍্যাব) ও আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন। সংস্থাগুলো এরই মধ্যে সিসি টিভি ফুটেজ বিশ্লেষণ করার পাশাপাশি অন্যদিকগুলোও খতিয়ে দেখছে।

শেষ পর্যন্ত চুরি শনাক্ত না করা গেলে খোয়া যাওয়া অর্থ আমরা ফুটবলারদের দিয়ে দেব।

মাহফুজা আক্তার কিরণ, বাফুফের নারী বিভাগের চেয়ারম্যান

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের উত্তরা বিভাগের উপপুলিশ কমিশনার মোহাম্মদ মোর্শেদ আলম জানিয়েছেন, ‘চুরির ঘটনায় বিমানবন্দর এলাকার একাধিক সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজ পর্যবেক্ষণ করছি আমরা। একইভাবে সক্রিয় হয়েছে বিমানবন্দরে দায়িত্ব পালন করা আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নও।’

সাফের ট্রফি হাতে অধিনায়ক সাবিনা খাতুনসহ অন্যরা।
বিমানবন্দরে সাফজয়ী ফুটবলারদের লাগেজ কেটে ডলার চুরি

সাফ শিরোপাজয়ী নারী দলের সদস্য সানজিদাসহ কৃষ্ণা রানী সরকারের লাগেজে থাকা ৯০০ ডলার ও বাংলাদেশি টাকা মিলিয়ে প্রায় দেড় লাখ টাকা এবং দলের অপর সদস্য শামসুন নাহারের ৪০০ ডলার চুরি হয়। দলের ফিজিওর কিছু মূল্যবান সামগ্রীও চুরি হয়েছে বলে বাফুফে থেকে জানানো হয়েছে। রাতে বাফুফে ভবনে লাগেজ হাতে পেয়ে ফুটবলাররা বুঝতে পারেন তাদের লাগেজ থেকে অর্থ ও জিনিসপত্র খোয়া গেছে।

সাফের ট্রফি হাতে অধিনায়ক সাবিনা খাতুনসহ অন্যরা।
দেশে ফিরে নারী ফুটবলারদের পুরস্কার দেবেন প্রধানমন্ত্রী

এদিকে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) নারী বিভাগের চেয়ারম্যান মাহফুজা আক্তার কিরণ বলেছেন, ‘শেষ পর্যন্ত চুরি শনাক্ত না করা গেলে খোয়া যাওয়া অর্থ আমরা ফুটবলারদের দিয়ে দেব।’

এ সম্পর্কিত খবর

No stories found.
kalbela.com