কোস্টারিকার জালে স্পেনের গোল উৎসব

গোল উৎসবে স্পেনের উল্লাস
গোল উৎসবে স্পেনের উল্লাসছবি: সংগৃহীত

প্রথমার্ধেই তিন গোল। দ্বিতীয়ার্ধে আরও ছন্দময় স্পেন। আসলো চার গোল। সব মিলিয়ে কোস্টারিকার জালে গোল উৎসব করে বিশ্বকাপ মিশন শুরু করেছে স্পেন।

বুধবার রাতে ই গ্রুপের ম্যাচে কোস্টারিকাকে ৭-০ গোলে হারিয়েছে স্প্যানিশরা। বিশ্বকাপের মঞ্চে স্পেনের এটি সবচেয়ে বড় ব্যবধানে জয়ের রেকর্ড। ১৯৯৮ সালে বুলগেরিয়ার বিপক্ষে ৬-১ ব্যবধানে জিতেছিল তারা। সেই রেকর্ড এবার ভাঙল তিকিতাকার জনকরা।

কিক অফের পর থেকেই স্পেনের আক্রমণ শুরু। পঞ্চম মিনিটে আসে গোলের প্রথম সুযোগ। পেদ্রির পাসে ওলমোর শট অল্পের জন্য লক্ষ্যে থাকেনি। নবম মিনিটে সুযোগ তৈরি করলেন পেদ্রি। কাজে লাগাতে পারলেন না আসেনসিও।

১১ মিনিটে প্রথম গোল স্পেনের। ডি-বক্সের একটু বাইরে থেকে গাভির চমৎকার চিপে বল নিয়ন্ত্রণে নেন ওলমো। এগিয়ে আসা গোলরক্ষক কেইলর নাভাসকে এড়িয়ে তার সফল লক্ষ্যভেদ (১-০)। ওলমোর সুবাদে গোলে বিশ্বকাপে স্পেন পায় শততম গোলের দেখা।

২১ মিনিটে দ্বিতীয় গোলের দেখা পায় স্পেন। এবার গোলদাতা মার্কো অ্যাসেনসিও। জর্দি অ্যালবার পাসে কোস্টারিকার জাল কাঁপান অ্যাসেনসিও (২-০)।

৩১ আলবাকে ফাউল করায় পেনাল্টি পায় স্পেন।  স্পট কিক থেকে দলের স্কোর ৩-০ করেন ফেরান তোরেস। প্রথমার্ধের বাকি সময়ে চাপ ধরে রাখে ২০১০ আসরের চ্যাম্পিয়নরা।

দ্বিতীয়ার্ধের ৫৪ মিনিটে আবার স্পেনের গোল। এবার গোলটি করেন ফেরেন তোরেস। অভিষেক বিশ্বকাপে স্পেনের তৃতীয় ফুটবলার হিসেবে জোড়া গোল করলেন তোরেস।

চার গোল হজমের পরও রক্ষণভাগ শক্ত রাখতে পারেনি কোস্টারিকা। স্পেনের ছন্দময় ফুটবলের কাছে পরাস্ত দলটি। ৭৪ মিনিটে নিজের প্রথম গোলের দেখা পান তরুণ গাভি। ৯০ মিনিটে কার্লোস সোলের গোলে স্পেনের স্কোর দাড়ায় ৬-০তে। অতিরিক্ত সময়ে কোস্টারিকার কফিনে শেষ পেরেক ঠুনে আলভারো মোরাতা (৭-০। রেকর্ড জয়ের উৎসবে মাঠ ছাড়ে স্পেন দল।

এই জয়ে ৩ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপের শীর্ষে উঠেছে স্পেন। দিনের অন্য ম্যাচে জার্মানিকে ২-১ গোলে হারানো জাপান আছে দুই নম্বরে।

এ সম্পর্কিত খবর

No stories found.
kalbela.com