মোটরসাইকেল চালানোর সময় যে বিষয়গুলো মাথায় রাখবেন

মোটরসাইকেল চালানোর সময় যে বিষয়গুলো মাথায় রাখবেন
প্রতীকী ছবি

একটি দুর্ঘটনা সারা জীবনের কান্না- এমন শ্লোগান আমরা অনেক শুনেছি, তবে মানছি কজন? প্রায় প্রতিদিন মোটরসাইকেল দুর্ঘটনার খবর শোনা যায়। এসব দুর্ঘটনার মূল কারণ হলো অসতর্কতা। আমরা মোটরসাইকেল চালানোর সময় নিরাপত্তার বিষয়গুলো মাথায় রাখি না। যার কারণে দুর্ঘটনার শিকার হতে হয়। বিশেষ করে তরুণদের ভিতর প্রবণতা একটু বেশি।

মনে রাখতে হবে অতিরিক্ত সতর্ক থাকা ভালো, যা আপনাকে সুরক্ষিত রাখবে। প্রত্যেকের জীবনের মূল্য আছে। শুধু আপনার জন্য না, আপনার ওপর নির্ভরশীল এমন প্রত্যেকের জন্য। এজন্য মোটরসাইকেল চালানোর সময় নিরাপত্তার বিষয়গুলোকে প্রাধান্য দিতে হবে। চলুন জেনে নেই যে বিষয়গুলো চালকদের মাথায় রাখা উচিত।

মোটরসাইকেল হতে হবে সামঞ্জস্যপূর্ণ

মোটরসাইকেল কেনার সময় নিশ্চিত হয়ে নিন, এর সবকিছু আপনার শরীরের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ। বসার আসন, হ্যান্ডেলবার, পাদানি শরীরের সঙ্গে মানানসই। আপনার উচ্চতা ও শারীরিক গড়ন বিবেচনায় নিয়ে মোটরসাইকেলটি মানানসই ও আরামদায়ক কি না, দেখে নিন।

সঠিকভাবে মোটরসাইকেল চালান

সঠিক দেহভঙ্গি আপনার ভ্রমণকে নিরাপদ এবং আনন্দদায়ক করবে। তাই ধীরেসুস্থে মোটরসাইকেল চালাবেন। অবশ্যই হেলমেট ব্যবহার করবেন।

মনোযোগ

বাইক চালানোর সময় চালকের চোখ-কান অবশ্যই খোলা রাখবেন। কারণ দুটি বাইকের চালকদের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝির কারণে দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।

মোবাইল ফোন ও হেডফোন

সম্পূর্ণ মনোযোগ ড্রাইভিংয়ের দিকে রাখা একটি অবশ্য পালনীয় নীতি। যে কোনো প্রকার অমনোযোগিতায় বাইকচালকের জন্য ক্ষতিকর এবং তা দুর্ঘটনা ঘটাতে পারে। বাইক চালানোর সময় কোনো কিছু চিন্তা করা খুবই খারাপ। এ ছাড়া মোবাইলে কথা বলা ও হেডফোন ব্যবহার থেকে বিরত থাকুন।

ট্রাফিক সিগন্যাল

মোটরসাইকেল চালানোর সময় দুর্ঘটনা এড়াতে ট্রাফিক সিগন্যাল মেনে চলুন। ট্রাফিক সিগন্যালগুলোতে পৌঁছানোর আগে থেকে বাইকের গতি কমিয়ে ফেলুন। এতে আপনার তেল আর ব্রেক প্যাডেলের ক্ষয় হবে কম।

বাম দিকে মোড় নেওয়ার সময় সব দিকে তাকান

আপনি বাম দিকে মোড় নেওয়ার আগে, আগত ট্রাফিক, বিশেষ করে মোটরসাইকেলগুলি সন্ধান করতে ভুলবেন না৷ কারণ হঠাৎ করে পাশ থেকে কোনো গাড়ি চলে আসতে পারে। এতে গুরুতর সমস্যায় পড়তে পারেন আপনি।

মোটরসাইকেলের লাইট এবং গ্লাস পরীক্ষা করুন

দূরে কোথাও গেলে অবশ্যই প্রথমে আপনি আপনার মোটরসাইকেলের লাইট, গ্লাস ও ইন্ডিকেটার পরীক্ষা করে দেখুন। কারণ ফিরতে রাত হয়ে গেলে আপনি বিপদে পড়তে পারেন।

যত্ন সহকারে অতিক্রম করুণ

যখন একজন মোটরসাইকেল চালক আরেকটি মোটরসাইকেল চালককে অতিক্রম করে, তখন পাশের মোটরসাইকেলটিকে অস্থির করে তুলতে পারে। এজন্য অতিক্রম করার আগে তাকে সিগনাল দিতে হবে। যাতে পাশের মোটরসাইকেল চালক বুঝতে পারে যে আপনি তাকে অতিক্রম করতে চাচ্ছেন।

আবহাওয়ার কথা মাথায় রাখুন

প্রতিকূল আবহাওয়া মোটরসাইকেল চালকদের উপর কঠোর প্রভাব ফেলে, বিশেষ করে বৃষ্টি, তুষার এবং বাতাস। বাতাসে মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ করা কঠিন হয়ে যায়। আর বৃষ্টিতে যেকোনো সময় পড়ে যাওয়ার ভয় থাকে। এমতাবস্থায় আপনাকে সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে।

এ সম্পর্কিত খবর

No stories found.
kalbela.com