খ্রিস্টানদের প্রদান করা কোনো কিছু গ্রহণ করা যাবে?

খ্রিস্টানদের প্রদান করা কোনো কিছু গ্রহণ করা যাবে?
পুরোনো ছবি

সমাজে মুসলিম ও খ্রিস্টান অন্য ধর্মের মানুষ এক সঙ্গে বাস করি। অনেক সময় খ্রিস্টান কিংবা অন্য ধর্মালম্বীদের মানুষ মুসলিমদের খাবার দেন। এগুলো নেওয়া যাবে কিনা। এই প্রশ্নের উত্তর জানতে আমাদের তাকাতে হবে রাসুল (সা:) এর জীবনী। আসলে আমাদের নবী তার জীবদ্দশায় অন্য ধর্মালম্বীদের কাছ থেকে কোনো কিছু গ্রহণ করেছিলেন কিনা। এ সম্পর্কে মিজানুর রহমান আজহারির কাছ থেকে জানব।

রাসুল (সা:) যখন ষষ্ঠ হিজরিতে মুশরিকদের সঙ্গে ১০ বছরের হুদাইবিয়ার করেছিলেন তখন ইসলামের দাওয়াত দেওয়ার জন্য মিশরীয় সম্রাট মুখাওফিসের কাছে চিঠি পাঠিয়েছিলেন। এই সম্রাট ছিলেন খ্রিস্টান ধর্মের। নবীর চিঠি পেয়ে তিনি খুব খুশি হয়েছিলেন।

সম্রাট খুশি হয়ে রাসুল (সা:) এর জন্য গিফট পাঠিয়েছিলেন। গিফটের মধ্যে ছিল- এক হাজার স্বর্ণের কয়েন ও দুজন খ্রিস্টান সুন্দরী নারী। এদের একজনের নাম ছিল মারিয়া। আরেকজনের নাম ছিল শিরিন। মারিয়াকে তিনি নিজের স্ত্রী হিসেবে রেখেছিলেন আর শিরিনকে তিনি এক সাহাবিকে দিয়েছিলেন।

এছাড়া একজন পুরুষ কর্মচারী ও ২০ পিস থান কাপড়ও পাঠিয়েছিলেন যাতে নবী পোশাক তৈরি করতে পারেন। রাসুল (সা:) ওই খ্রিস্টান সম্রাটের দেওয়া সবগুলো গিফট গ্রহণ করেছিলেন।

সেই আলোকে মিজানুর রহমান আজহারি বলেছেন, যেহেতু আমাদের নবী খ্রিস্টান কিংবা অন্য ধর্মালম্বী মানুষের দেওয়া জিনিস নিয়েছেন সেহেতু অন্য ধর্মের মানুষের দেওয়া যে কোনো কিছু গ্রহণ করা যাবে।

এ সম্পর্কিত খবর

No stories found.
kalbela.com