হার্ট অ্যাটাকের আগে শরীর যে ৮টি সতর্কতা সংকেত দেয়

হার্ট অ্যাটাকের আগে শরীর যে ৮টি সতর্কতা সংকেত দেয়

হৃদরোগ বিশ্বব্যাপী নারী ও পুরুষ উভয়ের মৃত্যুর অন্যতম মুখ্য কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। লস অ্যাঞ্জেলেসের সিডারস-সিনাই হার্ট ইনস্টিটিউটের বারব্রা স্ট্রিস্যান্ড উইমেনস হার্ট সেন্টারের পরিচালক সি. নোয়েল বেইরি মারজ বলেছেন, ‘দুই-তৃতীয়াংশ নারীর মধ্যে কম-সাধারণ, নন-হলিউড হার্ট অ্যাটাকের লক্ষণ থাকবে।’

হার্ট অ্যাটাক অনেকগুলো উপসর্গ হাজির করে যা সহজেই অন্য অসুস্থতার কারণ বলে ভুল হতে পারে। এজন্য হার্ট অ্যাটাকের লক্ষণগুলো শনাক্ত করা জরুরি। হার্ট অ্যাটাকের আগে শরীর আপনাকে ৮টি সতর্কতা সংকেত দেয়। চলুন জেনে নেওয়া যাক সেই লক্ষণ সম্পর্কে-

১. অস্বস্তিকর চাপ

আমেরিকান হার্ট অ্যাসোসিয়েশনের তালিকাভুক্ত হার্ট অ্যাটাকের প্রথম লক্ষণ হলো- বুকের মাঝখানে অস্বস্তিকর চাপ বা ব্যথা অনুভব হওয়া। এই অস্বস্তি এক সময়ে কয়েক মিনিটের বেশি স্থায়ী হতে পারে।

২. শরীরের অন্যান্য জায়গায় ব্যথা

হার্ট অ্যাটাকের ব্যথা বুক ছাড়া অন্য জায়গায় যেমন, পিঠ, কাঁধ, বাহু, ঘাড় বা চোয়ালে হতে পারে। ক্লিভল্যান্ড ক্লিনিকের মতে, যখন হৃৎপিণ্ডে কোনো সমস্যা হয় যেমন, একটি অবরুদ্ধ ধমনী আপনার হৃদয়ের স্নায়ুগুলোকে একটি সংকেত দিতে ট্রিগার করতে পারে যে কিছু ভুল হয়েছে। ফলে আপনি ব্যথা অনুভব করবেন। এ ছাড়া ভ্যাগাস স্নায়ু শুধু হৃৎপিণ্ডের সঙ্গেই নয়, মস্তিষ্ক, বুক, পেট এবং ঘাড়ের সঙ্গেও সংযুক্ত। এ কারণে আপনি হৃৎপিণ্ডের অঞ্চল ছাড়াও শরীরের অন্যান্য অংশে ব্যথা অনুভব হতে পারে।

৩. মাথা ঘোরা

অনেক কিছুতেই আপনার মাথা ঘুরতে পারে। যেমন, পর্যাপ্ত পানি পান না করা, দুপুরের খাবার এড়িয়ে যাওয়া বা খুব দ্রুত উঠে দাঁড়ানো। কিন্তু মাথা ঘোরা, হালকা মাথা ঘোরা, বুকে ব্যথা এবং শ্বাসকষ্ট আপনার রক্তের পরিমাণ হ্রাস ও রক্তচাপ কমে যাওয়াকে নির্দেশ করে। এর ফলে হার্ট অ্যাটাক হতে পারে।

৪. ক্লান্তি

একটি নিদ্রাহীন রাত বা চাপপূর্ণ দিনের পরে ক্লান্তি বোধ করা স্বাভাবিক। হার্ভার্ড হেলথ পাবলিশিং রিপোর্টে বলা হয়েছে, হার্ট অ্যাটাক হওয়ার এক মাস আগে নারীরা ক্লান্তি বোধ করতে পারেন। ন্যাশনাল হার্ট, ব্লাড এবং লাং ইনস্টিটিউটের মতে, এই লক্ষণটি বিশেষ করে নারীদের মধ্যে বিদ্যমান।

৫. বমি বমি ভাব বা বদহজম

স্টনি ব্রুক মেডিসিনের মতে, হৃৎপিণ্ড এবং শরীরের অন্যান্য অংশে পর্যাপ্ত রক্ত সরবরাহ না হলে পেটের অস্বস্তি, বমি বা বেলচিংয়ের মতো গ্যাস্ট্রিকের লক্ষণ দেখা দেয়। এটিকে অ্যাসিড রিফ্লাক্স বা অম্বল হিসেবে ধরে নেওয়া ভুল ধারণা হতে পারে। তাই ডাক্তারের সঙ্গে যোগাযোগ করা গুরুত্বপূর্ণ। বিশেষ করে যদি আপনার হার্ট অ্যাটাকের অন্যান্য লক্ষণ থাকে।

৬. ঘাম

যদি এমন হয় যে আপনি মেনোপজের মধ্য দিয়ে যাচ্ছেন না বা সবেমাত্র ব্যায়ামও করেননি, সেক্ষেত্রে ঠাণ্ডা ঘাম বা অতিরিক্ত ঘাম হওয়া হার্ট অ্যাটাকের সংকেত দিতে পারে। হার্ট অ্যাটাকের সময় আপনার স্নায়ুতন্ত্র একটি ‘ফাইট বা ফ্লাইট’ প্রতিক্রিয়া সক্রিয় করে যা আপনাকে বেঁচে থাকার মোডে রাখে এবং ঘাম হতে পারে।

৭. বুক ধড়ফড় করা

হৃৎপিণ্ডে পর্যাপ্ত রক্ত সরবরাহ না হলে শরীরে যেকোনো ধরনের ঘটনা ঘটতে পারে। স্টনি ব্রুক মেডিসিনের মতে, পুষ্টিকর রক্তের অভাবে হৃৎপিণ্ড খিটখিটে হতে শুরু করতে পারে। আপনি যদি মনে করেন যে, আপনার বুক ধড়ফড় করছে তাহলে অবিলম্বে ডাক্তারের সঙ্গে যোগাযোগ করুন।

৮. শ্বাসকষ্ট

আগে আপনি হেঁটে সিঁড়ি বেয়ে উঠতেন। কিন্তু যদি সম্প্রতি তা কঠিন মনে করেন তবে অবিলম্বে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। যদিও এর অর্থ এই নয় যে, আপনি এই মুহূর্তে হার্ট অ্যাটাক করতে চলেছেন। এটি একটি লক্ষণ হতে পারে যে আপনার হৃৎপিণ্ড বিপদের মধ্যে রয়েছে। এএইচএ তথ্য অনুযায়ী, বুকে কোনো প্রকার ব্যথা বা ব্যথা ছাড়াই শ্বাসকষ্ট হতে পারে।

এ সম্পর্কিত খবর

No stories found.
kalbela.com