শপথ নিলেন নিউজিল্যান্ডের নতুন প্রধানমন্ত্রী হিপকিন্স

শপথ গ্রহণের পর সংবাদমধ্যমে কথা বলছেন নিউজিল্যান্ডের নতুন প্রধানমন্ত্রী ক্রিস হিপকিন্স এবং উপপ্রধানমন্ত্রী কার্মেল সেপুলনি।
শপথ গ্রহণের পর সংবাদমধ্যমে কথা বলছেন নিউজিল্যান্ডের নতুন প্রধানমন্ত্রী ক্রিস হিপকিন্স এবং উপপ্রধানমন্ত্রী কার্মেল সেপুলনি।ছবি : সংগৃহীত

নিউজিল্যান্ডের নতুন প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন ক্রিস হিপকিন্স। গত সপ্তাহে সবাইকে অবাক করে হঠাৎ জাসিন্ডা আর্ডারন প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব ছাড়ার ঘোষণা দেওয়ার পর লেবার পার্টির এই নেতা নিউজিল্যান্ডের দায়িত্ব নিলেন।

নিউজিল্যান্ডের স্থানীয় সময় আজ বুধবার রাজধানী ওয়েলিংটনে একটি অনুষ্ঠানে ৪৪ বছর বয়সী ক্রিস হিপকিন্সকে শপথবাক্য পাঠ করান নিউজিল্যান্ডের গভর্নর জেনারেল সিন্ডি কায়রো। তার সঙ্গে ডেপুটি প্রাইম  মিনিস্টার হিসেবে শপথ নিয়েছেন কার্মেল সেপুলনি। কার্মেলই প্রথম প্যাসিফিক আইসল্যান্ডার, যিনি উপপ্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন।

আনুষ্ঠানিকভাবে দায়িত্ব গ্রহণের পর হিপকিন্স জানিয়েছেন, এটি তার জীবনের সবচেয়ে বড় সম্মান ও দায়িত্ব। আসন্ন চ্যালেঞ্জ নিয়ে তিনি উজ্জীবিত এবং উদ্দীপ্ত।

জাসিন্ডা প্রধানমন্ত্রী থাকাকালীন ক্রিস হিপকিন্স নিউজিল্যান্ডে করোনা মহামারি মোকাবিলায় গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেছিলেন। এখন তিনি নিজ দলের সমর্থন বাড়ানোর দায়িত্ব পালন করবেন।

এদিকে, প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নিউজিল্যান্ডের স্থানীয় সময় বুধবার শেষবারের মতো সংসদে আসেন জাসিন্ডা। তিনি বের হয়ে যাওয়ার সময় উপস্থিত সবাই দাঁড়িয়ে তাকে অভিবাদন জানান।

জাসিন্ডা প্রধানমন্ত্রিত্ব ছাড়লেও একজন সাধারণ সংসদ সদস্যের দায়িত্ব পালন করে যাবেন। তবে তিনি জানিয়েছেন, রাজনীতি থেকে নিজেকে অনেকটা গুটিয়ে নেবেন। এ ছাড়া নিজের সঙ্গী ক্লার্ক গেফোর্ডকে বিয়ে করার ঘোষণাও দিয়েছেন তিনি।

এ সম্পর্কিত খবর

No stories found.
logo
kalbela.com