স্কটল্যান্ডের স্বাধীনতা প্রশ্নে গণভোট আটকে দিল সুপ্রিম কোর্ট

প্রতীকী ছবি
প্রতীকী ছবি

যুক্তরাজ্য থেকে স্কটল্যান্ডের স্বাধীনতা প্রশ্নে প্রস্তাবিত একটি গণভোট আটকে দিয়েছে ব্রিটিশ সুপ্রিম কোর্ট। গতকাল বুধবার সুপ্রিম কোর্টের বিচারকরা এক নির্দেশনায় বলেছেন, যুক্তরাজ্য থেকে বেরিয়ে স্বাধীন রাষ্ট্র গঠনের লক্ষ্যে স্কটল্যান্ড সরকার একপাক্ষিকভাবে গণভোট আয়োজন করতে পারবে না। স্কটল্যান্ডের ফার্স্ট মিনিস্টার নিকোলা স্টার্জন আগামী বছরের ১৯ অক্টোবর গণভোট করতে চাইছিলেন। যুক্তরাজ্যের সর্বোচ্চ আদালত সর্বসম্মতিক্রমে রায় দিয়েছেন, নিকোলা স্টার্জনের গণভোট করার ক্ষমতা নেই। কারণ, বিষয়টি ওয়েস্টমিনস্টারের কাছে সংরক্ষিত।

যুক্তরাজ্য সরকার এর আগে এ বিষয়ে গণভোটের জন্য আনুষ্ঠানিক সম্মতি দিতে অস্বীকার করেছিল। এতে বিষয়টি আদালতে গড়ায়। সর্বোচ্চ আদালতের সভাপতি লর্ড রিড বলেছেন, ১৯৯৯ সালের যে আইনে স্কটিশ পার্লামেন্ট গঠন করা হয়েছিল সে অনুযায়ী স্কটল্যান্ড এবং ইংল্যান্ডের মধ্যে জোটসহ সাংবিধানিক ক্ষেত্রগুলোর ওপর এর ক্ষমতা নেই। তিনি বলেন, এই বিষয়গুলো যুক্তরাজ্য পার্লামেন্টের দায়িত্ব। সুতরাং দুই সরকারের মধ্যে মতৈক্য না থাকলে স্কটিশ পার্লামেন্ট গণভোটের জন্য আইন প্রণয়ন করতে অক্ষম।

এর আগে ২০১৪ সালে স্কটল্যান্ডের স্বাধীনতা প্রশ্নে গণভোট হয়েছিল। তাতে ৫৫ শতাংশ স্কটিশ ভোটার যুক্তরাজ্যের ভেতরে থাকার পক্ষে মত দিয়েছিল। স্বাধীনতার পক্ষে ছিল ৪৫ শতাংশ। সেবার গণভোট নেওয়া সম্ভব হয় কারণ যুক্তরাজ্য সরকার ‘৩০ ধারা আদেশ’ নামের বিধানের বলে অস্থায়ীভাবে স্কটিশ পার্লামেন্টকে এজন্য প্রয়োজনীয় ক্ষমতা হস্তান্তর করতে সম্মত হয়েছিল।

এ সম্পর্কিত খবর

No stories found.
kalbela.com