খেরসন শহর থেকে সেনা প্রত্যাহারের ঘোষণা রাশিয়ার

রাশিয়ার জেনারেল সুরোভিকিন (বামে) ও প্রতিরক্ষামন্ত্রী সের্গেই শোইগু (ডানে)।
রাশিয়ার জেনারেল সুরোভিকিন (বামে) ও প্রতিরক্ষামন্ত্রী সের্গেই শোইগু (ডানে)।ছবি : সংগৃহীত

ইউক্রেনের পাল্টা আক্রমণের মুখে দেশটির দিনিপ্রো নদীর পশ্চিম তীর থেকে সেনা প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়েছেন রাশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী সের্গেই শোইগু। গত ফেব্রুয়ারিতে ইউক্রেনে হামলা চালানোর পর এটি রাশিয়ার সবচেয়ে বড় পিছু হটা। খবর আলজাজিরা।

গত সেপ্টেম্বরে রাশিয়া যে চারটি ইউক্রেনীয় ভূখণ্ড নিজেদের বলে ঘোষণা করে খেরসন সেগুলোর একটি। ইউক্রেনে চলমান যুদ্ধে রাশিয়ার দখল করা একমাত্র প্রাদেশিক রাজধানী ও বৃহত্তম ভূখণ্ড হলো খেরসন। খেরসন প্রদেশের প্রাদেশিক রাজধানী খেরসন শহর দিনিপ্রো নদীর পশ্চিম তীরে অবস্থিত।

এক টেলিভাইজড বক্তব্যে রাশিয়ার কমান্ডার জেনারেল সের্গেই সুরোভিকিন বলেন, খেরসন শহর রসদ সরবরাহ করা আর সম্ভব নয়। দিনিপ্রো নদীর পূর্ব তীরে সেনাদের প্রতিরক্ষামূলক অবস্থান নিতে বলেছেন তিনি।

সুরোভিকিন বলেন, ‘আমরা আমাদের সেনাদের জীবন এবং ইউনিটের যুদ্ধ ক্ষমতা রক্ষা করব। তাদের ডান (পশ্চিম) তীরে রাখা ফলপ্রসূ না। তাদের মধ্যে অনেককে অন্য ফ্রন্টে ব্যবহার করা যেতে পারে।’

এদিকে রুশ গণমাধ্যমের বরাতে বিবিসি জানায়, খেরসনের ডেপুটি গভর্নর কিরিল স্ট্রেমাসভ গাড়ি দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন। এমন খবরের কিছুক্ষণের মধ্যেই খেরসন শহর থেকে রুশ সেনাদের প্রত্যাহারের এ ঘোষণা আসে।

এ সম্পর্কিত খবর

No stories found.
kalbela.com