সেনাবাহিনীতে যোগ না দিতে দেশ ছাড়ছে রুশরা

সেনাবাহিনীতে যোগ না দিতে দেশ ছাড়ছে রুশরা
ছবি : সংগৃহীত

সেনাবাহিনীতে যোগ দিতে দেশের পুরুষদের আহ্বান জানিয়েছে রাশিয়া। তবে এই সামরিক আহ্বানের পরই দেশ ছাড়তে শুরু করেন পুরুষেরা। আর এতেই রুশ সীমান্তে দেশ ছেড়ে পালানোর চেষ্টা করা মানুষের লম্বা সারি দেখা দিয়েছে। খবর বিবিসির।

গত বুধবার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন আংশিক সেনা সমাবেশের ঘোষণা দেন, যাতে তিন লাখ মানুষকে ডাকা হতে পারে। তবে পুরুষদের পালিয়ে যাওয়ার এমন প্রতিবেদনকে অতিরঞ্জিত বলে অভিহিত করেছে ক্রেমলিন।

রুশ সীমান্তে গাড়িতে করে দেশ ছেড়ে পালানোর চেষ্টা করছে মানুষ।
রুশ সীমান্তে গাড়িতে করে দেশ ছেড়ে পালানোর চেষ্টা করছে মানুষ। ছবি : সংগৃহীত

জর্জিয়া সীমান্তে যুদ্ধ থেকে পালানোর চেষ্টা করা পুরুষসহ যানবাহনের লম্বা সারি তৈরি হয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ব্যক্তি বিবিসিকে জানান, প্রেসিডেন্ট পুতিনের ঘোষণার পরপরই তিনি পাসপোর্ট নিয়ে সীমান্তের দিকে রওনা হয়েছেন। এমনকি তিনি সঙ্গে অন্য কিছুই নেননি। কারণ, তিনি এমন একটি দলে পড়েছেন, যাদের ইউক্রেন যুদ্ধে পাঠানো হতে পারে।


প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সামরিক এই আহ্বানের জেরে মস্কো ও সেন্ট পিটার্সবার্গসহ প্রধান প্রধান রাশিয়ান শহরে বিক্ষোভ শুরু হয়েছে। আর এতে ১ হাজার ৩০০ মানুষকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।
সেনাবাহিনীতে যোগ না দিতে দেশ ছাড়ছে রুশরা
রুশ রসদ সরবরাহ লাইনের দিকে অগ্রসর হচ্ছে ইউক্রেনীয় সেনারা

কয়েকজন প্রত্যক্ষদর্শী জানান, আপার লার্স চেকপয়েন্টে ৫ কিলোমিটার দীর্ঘ গাড়ির সারি হয়েছে। অন্য আরেকটি দল বলছে, সীমান্তের কাছে যেতে তাদের সাত ঘণ্টা সময় লেগেছে।

এদিকে রাতারাতি ফিনল্যান্ডে যাওয়া মানুষের সংখ্যাও বেড়েছে। দেশটির সঙ্গে রাশিয়ার সীমান্ত ১ হাজার ৩০০ কিলোমিটার। এ ছাড়া সেনাবাহিনীতে যোগদানের ঘোষণার পরপরই বিমানে করে যাওয়া যায় এমন অন্যান্য গন্তব্য, যেমন—ইস্তাম্বুল, বেলগ্রেড বা দুবাইয়ের টিকিটের দামও আকাশচুম্বী হয়েছে।

এ সম্পর্কিত খবর

No stories found.
kalbela.com