রাশিয়ায় যুদ্ধবিরোধী বিক্ষোভ, আটক ১৩শ

আন্দোলনরত এক নাগরিককে আটক করে নিয়ে যাচ্ছেন রুশ নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা।
আন্দোলনরত এক নাগরিককে আটক করে নিয়ে যাচ্ছেন রুশ নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা।ছবি : সংগৃহীত

ইউক্রেনে নতুন করে সেনা পাঠানোর ঘোষণায় বিক্ষোভ শুরু হয়েছে রাশিয়ায়। বিভিন্ন শহরে বিক্ষোভে নামেন হাজার হাজার মানুষ। রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করায় ১৩ শতাধিক মানুষকে আটক করা হয়েছে।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ানের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, মস্কো ও সেন্ট পিটার্সবার্গ থেকেই আটক করে পুলিশি হেফাজতে নেওয়া হয়েছে পাঁচ শতাধিক নাগরিককে। পুলিশ জানায়, আইন অমান্য করে জনবিক্ষোভ গড়ে তোলার অপরাধে তাদের আটক করা হয়েছে। আটকদের বিরুদ্ধে চলছে তদন্ত।

আন্দোলনরত এক নাগরিককে আটক করে নিয়ে যাচ্ছেন রুশ নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা।
সৈন্য সমাবেশের নির্দেশ পুতিনের, দিলেন পারমাণবিক হামলার ইঙ্গিতও

বুধবার জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে রুশ প্রেসিডেন্ট বিপুল সেনা সমাবেশের ঘোষণা দেন। এতে জরুরি ভিত্তিতে অন্তত তিন লাখের বেশি রিজার্ভ সেনাকে ডাকা হচ্ছে বলে জানানো হয়।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর এই প্রথম এমন সেনা সমাবেশ করতে যাচ্ছে রাশিয়া। বিশেষজ্ঞদের ধারণা, ইউক্রেন যুদ্ধের ফলাফল নিজেদের পক্ষে নিতে অতিরিক্ত সেনা মোতায়েনের মতো কঠোর সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন পুতিন।

সম্প্রতি ইউক্রেনের বিভিন্ন অঞ্চলে প্রতিরোধের মুখে পিছু হটতে শুরু করেছে রুশ বাহিনী। এরপরই অতিরিক্ত সেনা মোতায়েনের কথা জানায় মস্কো। রুশ প্রেসিডেন্টের এমন সিদ্ধান্তের নিন্দা জানিয়েছেন বিশ্বনেতারা।

এ সম্পর্কিত খবর

No stories found.
kalbela.com