নতুন রাষ্ট্রদূত ইরিট লিলিয়ান।
নতুন রাষ্ট্রদূত ইরিট লিলিয়ান।ছবি : সংগৃহীত

৪ বছর পর তুরস্কে ইসরায়েলের রাষ্ট্রদূত নিয়োগ

চার বছর পর তুরস্কে নিজ দেশের রাষ্ট্রদূত নিয়োগ দিল ইসরায়েল। ২০১৮ সালে আঙ্কারা দূতাবাসের রাষ্ট্রদূতকে ফিরিয়ে আনার পর পদটি শূন্য ছিল। রাষ্ট্রদূত নিয়োগের মধ্য দিয়ে দুই দেশের দীর্ঘ বিরোধপূর্ণ সম্পর্কের অবসান হলো বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ইরিট লিলিয়ান নামে এক সিনিয়র কূটনীতিককে রাষ্ট্রদূত হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হবে। তিনি গত দুই বছর আঙ্কারাস্থ ইসরায়েল দূতাবাসের দায়িত্বে ছিলেন। গতকাল সোমবার ইসরায়েল পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে এ ঘোষণা এসেছে।

২০১৮ সালে গাজা সীমান্তে বেশ কয়েকজন ফিলিস্তিনি বিক্ষোভকারীকে হত্যা করে ইসরায়েল। এ ঘটনার প্রতিবাদে তুরস্ক ইসরায়েল থেকে রাষ্ট্রদূত সরিয়ে নিলে, প্রত্যুত্তরে ইসরায়েল আঙ্কারা থেকে রাষ্ট্রদূতকে ফিরিয়ে আনে।

এক সময়ের বন্ধুপ্রতিম দুটি দেশের সম্পর্ক ২০০৩ সাল থেকে অবনতি হতে শুরু করে। ২০০৩ সালে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট হন রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান। তিনি বরাবরই ফিলিস্তিনিদের পক্ষে ইসরায়েলের কঠোর সমালোচক।

২০১০ সালে দুই দেশের সম্পর্ক চরম অবনতি হয়।
২০১০ সালে দুই দেশের সম্পর্ক চরম অবনতি হয়।ছবি : সংগৃহীত

২০০৯ সালে বিশ্ব অর্থনৈতিক ফোরাম সম্মেলনে তৎকালীন ইসরায়েল প্রেসিডেন্ট শিমন পেরেসের তীব্র সমালোচনা করেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট। এর ফলে সম্পর্কে আরও অবনতি হয়।

২০১০ সালে দুই দেশের মধ্যকার সম্পর্ক চরমে ওঠে, যখন ইসরায়েল অবরোধ ভেঙে তুরস্ক জাহাজে হামাস-শাসিত গাজা উপত্যকায় সহায়তা পাঠানোর চেষ্টা করে। এ ঘটনায় ইসরায়েল সেনাবাহিনীর হামলায় ৯ জন তুর্কি কর্মী নিহত হন।

Related Stories

No stories found.
kalbela.com