রোহিঙ্গাদের জন্য আরও ১৭ কোটি ডলার সহায়তা দেবে যুক্তরাষ্ট্র

রোহিঙ্গাদের জন্য আরও ১৭ কোটি ডলার সহায়তা দেবে যুক্তরাষ্ট্র

রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর জন্য আরও ১৭ কোটি ইউএস ডলার মানবিক সহায়তা প্রদানের ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। এই সহায়তা মিয়ানমার ও মিয়ানমারের বাইরে থাকা রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর স্বার্থে ব্যবহার করা হবে।

একই সঙ্গে এ সহায়তার অর্থ রোহিঙ্গা শরণার্থীদের আশ্রয়দাতা দেশ হিসেবে বাংলাদেশও পাবে। বৃহস্পতিবার এমন ঘোষণা দেয় দেশটি। তুরস্কের বার্তা সংস্থা আনাদোলু এজেন্সির এক প্রতিবেদনে এমনটা উল্লেখ করা হয়।

নতুন এ অর্থ সহায়তার ফলে ২০১৭ সালের আগস্ট থেকে এখন পর্যন্ত রোহিঙ্গা শরণার্থী সংকটে যুক্তরাষ্ট্রের সহায়তার পরিমাণ দাঁড়ায় ১৯০ কোটি ডলার। এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানান যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিংকেন।

বর্তমানে বাংলাদেশে ১২ লাখের বেশি রোহিঙ্গা শরণার্থী রয়েছে। যাদের অধিকাংশই ২০১৭ সালের আগস্টে আরাকান রাজ্যে জনগোষ্ঠীটির ওপর মিয়ানমার সেনাবাহিনীর নৃশংস গণহত্যার পর পালিয়ে এসেছে।

নতুন এ সহায়তার মধ্যে প্রায় ১৩ কোটি ৮০ লাখ ডলার বিশেষভাবে বাংলাদেশের জন্য বরাদ্দ রাখা হয়েছে। এই অর্থের মাধ্যমে বাংলাদেশে থাকা ৯ লাখ ৪০ হাজারের বেশি রোহিঙ্গা নাগরিকের জীবনযাপনে স্থিতিশীলতা আনার জন্য সহায়তা করা হবে।

বিবৃতিতে ব্লিংকেন আরও উল্লেখ করেন, আমরা অন্যান্য দাতা দেশগুলোর প্রতিও আহ্বান জানাচ্ছি যে, তারা যাতে মানবিক সহায়তায় তাদের অবদানের পরিমাণ আরও বাড়ান। মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা জনগোষ্ঠীর পাশে দাঁড়ান।

তিনি আরও উল্লেখ করেন, মিয়ানমারের বর্তমান পরিস্থিতি অনুযায়ী সেখানে ফিরে যাওয়া নিরাপদ নয়। আমরা এ ব্যাপারটি নিয়ে বাংলাদেশ সরকার, রোহিঙ্গা ও মিয়ানমারে থাকা পক্ষগুলোর সঙ্গে যোগাযোগ ও কাজ করে যাচ্ছি।

এ সম্পর্কিত খবর

No stories found.
kalbela.com