ঘরে নাকি বাইরে, কোথায় সাইক্লিং ভালো

ঘরে নাকি বাইরে, কোথায় সাইক্লিং ভালো
সংগৃহীত

সাইকেল চালানো দারুণ ব্যায়াম। যা একই সঙ্গে ক্লান্তি দূর করে এবং স্বাস্থ্যের জন্য উপকারি। একবার সাইক্লিংয়ের নেশা হয়ে গেলে গান শুনতে শুনতে বা পার্কে ঠান্ডা বাতাসে অনায়েসেই এই ব্যায়াম করতে পারবেন।

তাই বলে যারা সাইকেল চালাতে পারেন না তাদের দুশ্চিন্তার কিছু নেই। আজকাল ইনডোর সাইকেলের ব্যবস্থা রয়েছে।

যাদের ক্রনিক স্ট্রোক আছে তাদের হৃদস্পন্দন স্বাভাবিক করার জন্য সাইক্লিং করতে বলা হয়। আপনার জন্য ঘরে নাকি বাইরে সাইক্লিং ভালো, যেভাবে বুঝবেন।

কী পরিমাণ ক্যালরি ক্ষয় হয়?

ইনডোর নাকি আউটডোর কী ধরনের সাইক্লিং করছেন শুধু তার ওপরে নয়, বেশ কিছু বিষয়ের ওপর নির্ভর করে আপনার কতটা ক্যালরি ক্ষয় হবে। আপনার ওজন, গতি, কতবার বিরতি নিচ্ছেন এবং কতক্ষণ ধরে সাইকেল চালাচ্ছেন এসবের ওপর নির্ভর করে। তবে ইনডোর সাইক্লিংয়ের চেয়ে আউটডোর সাইক্লিংয়ে বেশি ক্যালারি ক্ষয় হয়।

৫৬ থেকে ৫৭ কেজি ওজনের কেউ ঘরে বা জিমে ৩০ মিনিট সাইকেল চালিয়ে ২১০ থেকে ৩১৫ ক্যালরি ক্ষয় করতে পারে, যা নির্ভর করে তার ক্ষীপ্রতার ওপর। একই ব্যক্তি একই সময়ে যদি আরও দ্রুত গতিতে চালায় তাহলে ২৪০ থেকে ৪৯৫ ক্যালরি ক্ষয় হতে পারে।

আবার ৮৩ থেকে ৮৪ কেজি ওজনের কেউ ৩০ মিনিট সাইকেল চালিয়ে গতির ভিত্তিতে ৩১১ থেকে ৪৬৬ ক্যালরি পোড়াতে পারে। আবার একই ব্যক্তি এই সময়ে ক্ষীপ্রতার ভিত্তিতে ৩৫৫ থেকে ৭৩৩ ক্যালরি ক্ষয় করতে পারে।

এক্সারসাইজ সাইকেলের সুবিধা

আপনি যখন বাইরে সাইকেল চালান তখন পর্যায়ক্রমে আশপাশের দৃশ্য পরিবর্তন হতে থাকে। তাই আশপাশের দৃশ্য উপভোগ করতে গিয়ে ক্ষীপ্রতা বেশি আসে না। এদিকে এক্সারসাইজ বা স্টেশনারি সাইকেলে আপনি ক্ষীপ্রতার সঙ্গে সাইক্লিং করতে পারেন। প্রতিরোধের মাত্রা বাড়িয়ে নিজেকে চ্যালেঞ্জও দিতে পারেন।

সংগৃহীত

এক্সারসাইজ সাইকেল ও ওজন কমানো

এক্সারসাইজ সাইকেলে মেদ বা ওজন কমবে কি না তা নিয়ে দ্বিধা কাজ করে অনেকের। এই প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে বেশ কিছু গবেষণা হয়েছে।

২০১৮ সালের এক গবেষণায় দেখা গেছে, তরুণীদের খাবারে কোনো উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন না এনেই ইনডোর সাইক্লিং রক্তে কোলেস্টেরলের মাত্রা কমাতে এবং সহনশীলতা ও শক্তি বাড়াতে সাহায্য করে।

৪০ জন নারীর অংশ নেয়া আরেকটি গবেষণায় দেখা গেছে, ১২ সপ্তাহ ইনডোর সাইক্লিংয়ের পর তাদের কোলেস্টেরলের মাত্রা, শরীরের ওজন, চর্বির শতাংশ ও দেহের ওজন সূচক বা বিএমআই কমে গেছে। এ থেকে দেখা যায়, ইনডোর সাইক্লিংয়ে ওজন কমে ও সুস্বাস্থ্য অর্জন হয়।

স্পিনিং বনাম সাইক্লিং

দক্ষিণ কোরিয়ার মাধ্যমিক স্কুলের ২৪ জন ছাত্রীর ১৬ সপ্তাহের সাইক্লিংয়ের ওপর একটি গবেষণা হয়। তাদের মধ্যে ১২ জন ঘরে ও বাকিরা বাইরে সাইকেল চালিয়েছে। ওজন কমার ক্ষেত্রে এই দুইয়ের মধ্যে উল্লেখযোগ্য কোনো পার্থক্য আসেনি।

তবে ফিটনেস, চর্বির শতাংশ এবং দেহের ওজন সূচকের ওপর বড় ধরনের প্রভাব রেখেছিল ইনডোর সাইক্লিং।

এ সম্পর্কিত খবর

No stories found.
kalbela.com