ইডেন মহিলা কলেজ ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি আয়েশা ইসলাম মীম।
ইডেন মহিলা কলেজ ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি আয়েশা ইসলাম মীম।ছবি : সংগৃহীত

ছাত্রলীগ নেত্রীর বিরুদ্ধে ইডেন কলেজের শিক্ষার্থীকে নির্যাতনের অভিযোগ

ইডেন মহিলা কলেজ ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি আয়েশা ইসলাম মীমের বিরুদ্ধে এক শিক্ষার্থীর গায়ে গরম চা ঢেলে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় কলেজের শহীদ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব ছাত্রী নিবাসের ৩১৩ নম্বর কক্ষে এ ঘটনা ঘটে বলে জানা যায়।

আয়েশা ইসলাম মীম ইডেন মহিলা কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি তামান্না জেসমিন রিভার অনুসারী। রিভা কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্যের অনুসারী বলে জানা গেছে।

ভুক্তভোগী শিক্ষাথীর নাম এ্যানি। তিনি ২০১৬-১৭ সেশনের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী।

এ্যানির অভিযোগ, গতকাল সোমবার সকাল ৯টার দিকে আয়েশা ইসলাম মীমের কয়েকজন বহিরাগত অনুসারী রিডিং রুমের দরজা ব্লক করে টেবিলে বসে ছিলেন। এতে চলাচলে বিঘ্ন ঘটায় সরে বসতে বলেন এ্যানি। এ নিয়ে উভয়ের মধ্যে কথা-কাটাকাটি হয়। পরে সন্ধ্যার দিকে এ্যানির কক্ষে গিয়ে তাকে গালমন্দ করতে থাকেন মীম। একপর্যায়ে সেখানে একটি মগে থাকা গরম চা এ্যানির পায়ে ঢালার পাশাপাশি হাতও মচকে দেন তিনি। পরে ওই কক্ষের সবাইকে বের করে দিয়ে তাকে হেনস্তার হুমকি দেন মীম।

ইডেন মহিলা কলেজ ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি আয়েশা ইসলাম মীম।
ইডেন কলেজে র‌্যাগ ডে নিষিদ্ধ

এ বিষয়ে ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী কালবেলাকে বলেন, সকাল ৯টার দিকে রিডিং রুমে গিয়েছিলাম। সেখানে মীম আপুর মেয়েরা ঝামেলা করেন। ওই সময় তারা আমাকে দেখে নেওয়ার হুমকি দেন। পরে সন্ধ্যার দিকে তারা এ ঘটনা ঘটান।

এ বিষয়ে জানতে অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেত্রীকে একাধিকবার ফোন দিলেও তিনি ফোন ধরেননি।

তবে জানা গেছে, অভিযুক্তরা হলের প্রাধ্যক্ষসহ ভুক্তভোগীর কাছে গিয়েছিলেন এবং হল প্রশাসনের মধ্যস্থতায় বিষয়টি মীমাংসা করেছেন।

এ বিষয়ে জানতে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব ছাত্রী নিবাসের প্রাধ্যক্ষ নাজমুন নাহারকে একাধিকবার ফোন দিলেও তার নম্বর বন্ধ পাওয়া যায়। এ ছাড়া কলেজ অধ্যক্ষ সুপ্রিয়া ভট্টাচার্যও ফোন ধরেননি।

Related Stories

No stories found.
kalbela.com