কুমিল্লায় নেতাকর্মীদের আপ্যায়নে অর্ধশতাধিক গরু জবাইয়ের ঘোষণা

বৃহস্পতিবার বিকেলের পর থেকে কুমিল্লায় আসতে শুরু করেছেন নেতাকর্মীরা।
বৃহস্পতিবার বিকেলের পর থেকে কুমিল্লায় আসতে শুরু করেছেন নেতাকর্মীরা।ছবি : কালবেলা

কুমিল্লার টাউন হল মাঠে বিএনপির বিভাগীয় গণসমাবেশে যোগ দিতে আসা নেতাকর্মীদের আপ্যায়নের জন্য ৫০টিরও বেশি গরু জবাইয়ের ঘোষণা দিয়েছেন দলীয় নেতারা। গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে সমাবেশস্থল পরিদর্শনে গিয়ে বিএনপি ও এর অঙ্গসংগঠনের নেতারা এ ঘোষণা দেন।

কুমিল্লা মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক উদবাতুল বারী আবু, দক্ষিণ জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক হাজী আনোয়ারুল হক, ১৩ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর রাজিউর রহমান রাজিবসহ আরও কয়েকজন নেতা এ ব্যবস্থা করবেন বলে জানানো হয়েছে।

জ্বালানি তেল ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের মূল্যবৃদ্ধি; ভোলা, মুন্সীগঞ্জ, নারায়ণগঞ্জ ও যশোরে পাঁচ নেতাকর্মী নিহত এবং সারা দেশে আওয়ামী লীগের সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে আগামীকাল শনিবার কুমিল্লায় গণসমাবেশের ডাক দিয়েছে বিএনপি। সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে থাকবেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

এই সমাবেশ ঘিরে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা কাজ করছে বিএনপির নেতাকর্মী ও সমর্থকদের মাঝে। পোস্টার-ব্যানার-ফেস্টুনে ছেয়ে গেছে পুরো নগরী। বৃহস্পতিবার বিকেলের পর থেকে কুমিল্লায় আসতে শুরু করেছেন বিভিন্ন জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের নেতাকর্মীরা। সময় যত গড়াচ্ছে মানুষের ততই ভিড় বাড়ছে কুমিল্লা নগরীতে।

বৃহস্পতিবার বিকেলের পর থেকে কুমিল্লায় আসতে শুরু করেছেন নেতাকর্মীরা।
পোস্টার-ব্যানারে ছেয়ে গেছে কুমিল্লা, আসছেন নেতাকর্মীরা

কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক তোফায়েল আহমেদ বলেন, ‘আগেভাগেই সম্মেলনে চলে আসা নেতাকর্মীদের আপ্যায়ন করতে শহরের প্রবেশ পথগুলোতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। টমসনব্রিজ এলাকায় উদবাতুল বারী আবু, শহরের পূর্বাঞ্চলে রাজিউর রহমান রাজিব এবং পশ্চিমাঞ্চলে শাসনাগাছা এলাকায় যুবদলের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ারুল হক আপ্যায়নের ব্যবস্থা করছেন। নেতাকর্মীদের জন্য ৫০টিরও বেশি গরু জবাই করা হবে।’

মহানগর বিএনপির নেতা কাউসার জামান বাপ্পী বলেন, ‘আপ্যায়নের জন্য আমাদের আলাদা টিম রাখা হয়েছে। সমাবেশে আসা নেতাকর্মীদের খাওয়া-দাওয়া নিয়ে কোনো সমস্যা হবে না।’

আবু বলেন, ‘গণসমাবেশে যোগ দেওয়ার জন্য চাঁদপুর, ব্রাহ্মণবাড়িয়াসহ দূর-দূরান্ত থেকে নেতাকর্মীরা আসবেন। তাদের আপ্যায়নের জন্য মহানগর বিএনপির উদ্যোগে নগরীর প্রত্যেকটি প্রবেশমুখে ও গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে স্বেচ্ছাসেবকদের নিযুক্ত করা হয়েছে।

‘সমাবেশে আসা নেতাকর্মীদের আপ্যায়নে যেন সমস্যা না হয়, সে জন্য সব প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। শনিবার সকাল পর্যন্ত নেতাকর্মীদের আপ্যায়ন করা হবে।’

এ সম্পর্কিত খবর

No stories found.
kalbela.com