ডেল্টা লাইফের সব প্রশাসকদের দুর্নীতির অডিট হবে : আদিবা রহমান

ডেল্টা লাইফ ইন্স্যুরেন্সের পুনর্গঠিত পরিচালনা পর্ষদের পরিচালক আদিবা রহমান।
ডেল্টা লাইফ ইন্স্যুরেন্সের পুনর্গঠিত পরিচালনা পর্ষদের পরিচালক আদিবা রহমান।পুরোনো ছবি

বিমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের (আইডিআরএ) নিয়োগ করা প্রশাসকরা গত ১৯ মাস ডেল্টা লাইফ ইন্স্যুরেন্সে দায়িত্ব পালন করেছে। তাদের সময়ে প্রতিষ্ঠানটিতে যেসব দুর্নীতি হয়েছে, তা অডিট করা হবে বলে জানিয়েছেন ডেল্টা লাইফ ইন্স্যুরেন্সের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং পুনর্গঠিত পরিচালনা পর্ষদের পরিচালক আদিবা রহমান।

আদালতের নির্দেশনায় গতকাল সোমবার ডেল্টা লাইফে নিয়োজিত প্রশাসক প্রত্যাহার করেছে আইডিআরএ। কোম্পানির পুনর্গঠিত পর্ষদ আজ মঙ্গলবার দায়িত্ব পালন শুরু করেছেন।

পুনর্গঠিত পর্ষদের স্বতন্ত্র পরিচালক ও চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পেয়েছেন সংসদ সদস্য ও পূবালী ব্যাংকের সাবেক চেয়ারম্যান হাফিজ আহমেদ মজুমদার। ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংকের (ইউসিবি) পরিচালক অধ্যাপক ডা. মো. জুনায়েদ শফিক, জেনেক্স ইনফোসিস লিমিটেডের মনোনীত পরিচালক হিসেবে ডেল্টা লাইফের পর্ষদে ভাইস চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পেয়েছেন।

কোম্পানির সাবেক চেয়ারম্যান মনজুরুর রহমানের মেয়ে ও সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক আদিবা রহমান, মনজুরুর রহমানের স্ত্রী সুরাইয়া রহমান, ছেলে জেয়াদ রহমান পুনর্গঠিত পর্ষদে পরিচালকের দায়িত্ব পালন করবেন। আরকম অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট লিমিটেডের মনোনীত পরিচালক হিসেবে চাকলাদার রেজানুল আলম ও দ্যাটস আইটি স্পোর্টস ওয়্যার লিমিটেডের মনোনীত পরিচালক হিসেবে হা-মীম গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এ কে আজাদের ছেলে সাকিব আজাদ পুনর্গঠিত পর্ষদে পরিচালক হয়েছেন। এ ছাড়া সাকিব আজিজ চৌধুরীকে পর্ষদে স্বতন্ত্র পরিচালক হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

ডেল্টা লাইফের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও নতুন পর্ষদের পরিচালক আদিবা রহমান গণমাধ্যমকে বলেন, আইডিআরএর সাবেক চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন বিনা কারণে আমাদের পর্ষদ ভেঙেছে, তার নিয়োগ করা প্রশাসকরা যেসব দুর্নীতি করেছেন তা খতিয়ে দেখতে অডিট করা হবে। পাশাপাশি কোম্পানির গ্রাহকদের যে আস্থাহীনতা তৈরি হয়েছে, তা দূর করতে কাজ করা হবে।

কোম্পানি সূত্রে জানা গেছে, পুনর্গঠিত পরিচালনা পর্ষদ বিমা আইন ও অন্যান্য আরোপিত বিধিনিষেধ অনুসরণ করে অতি দ্রুত একজন দক্ষ এবং গ্রহণযোগ্য মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা নিয়োগ দেবে।

এর আগে গতকাল সোমবার আইডিআরএর নির্বাহী পরিচালক শাকিল আখতার সই করা নির্দেশনায় নতুন পর্ষদকে নয়টি শর্ত দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে প্রচলিত আইন অনুযায়ী পরিচালনা পর্ষদের মাধ্যমে সব কার্যক্রম সম্পন্ন করতে হবে। কোম্পানির আর্থিক বিবাদী সম্পর্কিত তথ্যাদি উদ্ঘাটনে নতুন করে অডিট ফার্মের মাধ্যমে কার্যক্রম সম্পন্ন করতে হবে। পুনর্গঠিত পরিচালনা পর্ষদের মাধ্যমে দ্রুততম সময়ের মধ্যে এক বছরের ব্যবসায়িক কৌশলপত্র দিতে হবে এবং তার অগ্রগতি প্রতি মাসে কর্তৃপক্ষের কাছে দাখিল করতে হবে।

আগের যদি কোনো অনিয়ম চিহ্নিত হয়ে থাকে তার পুনরাবৃত্তি যাতে না ঘটে সেজন্য ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। কর্তৃপক্ষ আরোপিত আগের জরিমানা আইন অনুযায়ী বিবেচিত হবে।

পুনর্গঠিত পরিচালনা পর্ষদ কোম্পানির পরবর্তী বার্ষিক সাধারণ সভা আগামী ৩১ ডিসেম্বর মধ্যে আয়োজনের ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারে।

পরিচালনা পর্ষদে পর্যবেক্ষক হিসেবে মন্ত্রণালয়ের একজন উপযুক্ত প্রতিনিধিকে (যুগ্ম সচিবের নিম্নে নয়) নিয়োজিত করা হবে।

এর আগে বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগ তুলে গত বছরের ১১ ফেব্রুয়ারি ডেল্টা লাইফের পরিচালনা পর্ষদ সাসপেন্ড করে আইডিআরএ। সেখানে আইডিআরএর সাবেক সদস্য সুলতান-উল-আবেদীন মোল্লাকে প্রশাসক নিয়োগ দেওয়া হয়।

এরপর গত ১৯ মাসে ৩ দফায় প্রশাসক পরিবর্তন করা হয়। সর্বশেষ প্রশাসক হিসেবে দায়িত্বে পালন করেন আইডিআরএর সাবেক সদস্য কুদ্দুস খান।

কোম্পানিটিতে প্রশাসক নিয়োগের আগে ২০২১ সালের ৭ ফেব্রুয়ারি সংবাদ সম্মেলন করেও আইডিআরএর সাবেক চেয়ারম্যান এম মোশাররফ হোসেনের বিরুদ্ধে ঘুষ দাবি করার অভিযোগ তোলে ডেল্টা লাইফ কর্তৃপক্ষ। এই সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ডেল্টা লাইফের সাবেক সিইও আদিবা রহমান। সংবাদ সম্মেলন তিন দিনের মাথায় ১১ ফেব্রুয়ারি কোম্পানিটিতে প্রশাসক নিয়োগ দেয় আইডিআরএ।

এ সম্পর্কিত খবর

No stories found.
kalbela.com