শূন্য থেকে কোটিপতি কাদির মোল্লা

থার্মেক্স গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবদুল কাদির মোল্লা।
থার্মেক্স গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবদুল কাদির মোল্লা।ছবি: সংগৃহীত

জীবনে অনেক উত্থান-পতন পাড়ি দিয়েই দেখা যায় সফলতার মুখ। তবে সততা ও লক্ষ্য স্থির থাকলে অল্প পুঁজি নিয়েও জীবনে সফল হওয়া যায় বলে মনে করেন থার্মেক্স গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবদুল কাদির মোল্লা। এক সাক্ষাৎকারে এমনটাই জানান তিনি।

তিনি বলেন, ‘আমার জন্ম ও বেড়ে ওঠা নরসিংদীতে। আমি খুব দরিদ্র পরিবারের সন্তান ছিলাম। ১৯৭৪ সালে অষ্টম শ্রেণিতে পড়াকালীন সময়ে হারাই বাবা আবদুল মজিদ মোল্লাকে। তার মৃত্যুর পর পুরো দায়িত্বটা এসে পড়ে আমার কাঁধে। এরপর আমার পড়াশুনার আগ্রহ দেখে লজিং মাস্টার হিসেবে থেকে পড়ার ব্যবস্থা করে দেন স্কুলের প্রধান শিক্ষক। লজিং থেকেই এসএসসি পাস করে ভর্তি হই কলেজে। তবে মাত্র ৩৬০ টাকা জোগাড় করতে না পারায় জন্য এইচএসসি পরীক্ষার ফরম পূরণ করতে পারিনি। তাই এইচএসসি পরীক্ষা না দিতে পারায় পড়াশুনা ছেড়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন তিনি।’

পরে তিনি সিদ্ধান্ত নেন ঢাকায় এসে রিক্সা চালানোর। সেই উদ্দেশ্যে বাসেও ‍উঠেন কিন্তু টাকা না থাকায় ইটাখোলাতে তাকে নামিয়ে দেয় হেলপার। পরে সেখানেই দিনমজুরদের সাথে যোগাযোগ করে কাজে যোগ দেন তিনি। সেখানে পাট ক্ষেত ও আউশ ধানের ক্ষেতে ৬ দিনের কাজের বিনিময়ে ৪ টাকা দেয় তাকে। এটি তার ছাত্র জীবনে প্রথম পুঁজি।

তিনি বলেন, ‘এই ৪ টাকা নিয়ে আবার ঢাকার উদ্দেশ্যে ট্রেনে উঠি। কিন্তু সেই ট্রেন আমাকে মদনগঞ্জে নামিয়ে দেয়। সেখানে সারারাত স্টেশনে ছিলাম। পরদিন পত্রিকায় মেরিন টেকনোলজির একটি বিজ্ঞপ্তি দেখে সেখানে ভর্তি হয়ে গেলাম। ভর্তির পর তিন বছরের কোর্স দুই বছরে শেষ করলাম। এরপর একটি শিপইয়ার্ডের চাকরি পেয়ে সিঙ্গাপুর চলে যাই।’

তিনি আরও বলেন, সিঙ্গাপুরে পাঁচ বছর চাকরি করে দেশে ফিরেন তিনি। তবে ততদিনে তাদের সংসার এলোমেলো হয়ে যায়। এসময় নিজের জমানো টাকা দিয়ে তিনি ব্যবসা শুরু করেন তিনি। পরে অ্যাপেক্স গ্রুপের ড. জহুর, হারুন ও ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকুর পরামর্শে ১৯৯৬ সালে ব্যাংক ঋণ নিয়ে কাপড়ের ব্যবসা শুরু করেন কাদির মোল্লা। এসময় তিনি কাজের মাধ্যমে বায়ারদের মন জয় করতে সক্ষম হন। এরপর থেকে একের একের সফলতা অর্জন করতে থাকেন তিনি। শুরুতে ছোট পরিসরে শুরু করলেও এখন সবকিছু মিলিয়ে তার ১৫টি কারখানা রয়েছে।

এ সম্পর্কিত খবর

No stories found.
kalbela.com