তিন মাসে ৬৭ হাজার কোটি টাকা রাজস্ব পেয়েছে এনবিআর

রাজস্ব ভবনv
রাজস্ব ভবনvছবি : সংগৃহীত

আমদানি কমে যাওয়ার প্রভাব পড়েছে রাজস্ব সংগ্রহে। চলতি অর্থবছরের প্রথম তিন মাসে (জুলাই-সেপ্টেম্বর) রাজস্ব সংগ্রহে ১৫ দশমিক ৬৮ শতাংশ প্রবৃদ্ধি হয়েছে। এই তিন মাসে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) ৬৭ হাজার ১২৪ কোটি টাকার রাজস্ব পেয়েছে।

এনবিআরের তথ্য মতে, সেপ্টেম্বরে আয়কর, মূল্য সংযোজন কর ও কাস্টমস শুল্ক মিলিয়ে রাজস্ব আদায় বেড়েছে আগের বছরের সেপ্টেম্বরের তুলনায় ৭ দশমিক ৬৭ শতাংশ বেড়েছে। অথচ আগের দুই মাসে গড়ে রাজস্ব আদায় বেড়েছিল প্রায় ১৯ শতাংশ হারে।

রাজস্ব খাত-সংশ্লিষ্টদের পাশাপাশি অর্থনীতিবিদরাও সেপ্টেম্বরে আদায় কমার পেছনে আমদানি কমে যাওয়াকে দায়ী করেছেন। এই তিন মাসে ভ্যাট ও আয়কর আদায় বাড়লেও আমদানি শুল্ক থেকে রাজস্ব সংগ্রহ কমেছে। সেপ্টেম্বরের রাজস্বের পরিসংখ্যান পর্যালোচনায় দেখা গেছে, আমদানি পর্যায়ে কাস্টমস ডিউটি আদায় না বেড়ে বরং কমেছে প্রায় দেড় শতাংশ। তবে আলোচ্য মাসে ভ্যাট আদায় বেড়েছে ১৭ শতাংশ ও আয়কর আদায় বেড়েছে ৭ শতাংশ। গত সেপ্টেম্বরে রাজস্ব আদায় হয়েছে ২৬ হাজার ৮৩৪ কোটি টাকা। অন্যদিকে, গত বছরের সেপ্টেম্বরে রাজস্ব সংগ্রহের পরিমাণ ছিল ২৪ হাজার ৯২৩ কোটি টাকা। এ বিষয়ে চট্টগ্রাম কাস্টম হাউসের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, আমদানি কমে যাওয়ায় রাজস্ব কমেছে। অক্টোবরেও আমদানি কমতির দিকে। ফলে আমদানি শুল্ক কমবে। মোট আমদানি শুল্কে যেহেতু চট্টগ্রাম কাস্টম হাউসের অবদান অনেক বেশি, তাই চট্টগ্রামে কমলে এবং অন্য কাস্টম হাউসগুলোতে বাড়লেও রাজস্ব সংগ্রহে প্রবৃদ্ধি হবে না।

এ সম্পর্কিত খবর

No stories found.
kalbela.com