আধিপত্য হারাচ্ছে ডলার?

ডলার।
ডলার।ছবি: সংগৃহীত

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর থেকে সারা বিশ্বে আধিপত্য বিস্তার করছে আমেরিকান ডলার। তবে ইউক্রেনে রুশ আগ্রাসনের কারণে ডলারের চাহিদা কমা নিয়ে শঙ্কা তৈরি হয়েছে। কারণ রাশিয়ার উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের পর থেকে নতুন মুদ্রায় লেনদেন নিয়ে বেশ তোড়জোর চলছে বলে মনে করছেন পর্যবেক্ষকরা।

ব্রিটেনের টাইমস পত্রিকাকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে আন্তর্জাতিক ‍মুদ্রা তহবিলের উপ-পরিচালক গীতা গোপিনাথ সতর্ক করে বলেছেন, রাশিয়ার উপর অবরোধের মেয়াদ দীর্ঘ হলে তা আমেরিকান ডলারের জন্যই খারাপ হবে। কারণ এতে ডলার বিশ্বের প্রভাবশালী মুদ্রা হিসেবে থাকলেও কিছু দেশ লেনদেনের স্বার্থে অন্য মুদ্রার ব্যবহার শুরু করবে। সেই সঙ্গে পৃথিবীর অনেক দেশ তাদের ব্যাংকে ডলারের যে রিজার্ভ রাখে তা কমিয়ে অন্য মুদ্রায় রাখতে পারে। ফলে ডলারের চাহিদা কমতে পারে।

এদিকে, ২০১৬ আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ) চীনের মুদ্রাকে বিশ্বের অন্যতম ফরেন এক্সচেঞ্জ কারেন্সি হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে। আইএমএফের হিসেবে দেখা যায়, বিশ্বের বিভিন্ন দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের বৈদশিক মুদ্রায় যত রিজার্ভ আছে তার মাত্র ২.৭৯ শতাংশ চীনের ইউয়ান। এছাড়া আমেরিকান ডলারের বৈদশিক মুদ্রার রিজার্ভ আছে ৫৮.৮১ শতাংশ এবং দ্বিতীয় অবস্থানে আছে ইউরো, ২০.৬৪ শতাংশ।

আমেরিকার মাল্টিন্যাশনাল ইনভেস্টমেন্ট ব্যাংক ও আর্থিক সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান গোল্ডম্যান স্যাক্স তাদের এক প্রতিবেদনে বলেছে, ১৯২০ সালে ব্রিটিশ পাউন্ড যেভাবে তাদের আধিপত্য হারিয়েছে বর্তমানে আমেরিকান ডলারও তেমন পরিস্থিতির মুখোমুখি হয়েছে। ইউরোপ ও আমেরিকার নিষেধাজ্ঞার কারণে রাশিয়া তার বৈদশিক মুদ্রার অর্ধেক ব্যবহার করতে পারছে না। কারণ এসকল বৈদশিক মুদ্রা ডলার ও ইউরোতে রাখা হয়েছে। এর ফলে অনেক দেশ ডলারের উপর নির্ভরতা হারিয়ে রিজার্ভ কমিয়ে আনতে পারে।

তবে অর্থনীতিবিদরা বলছেন, ডলারের আধিপত্য এখনই কমছে না। এর আধিপত্য কমতে আরও কয়েক দশক সময় লাগতে পারে।

এ সম্পর্কিত খবর

No stories found.
kalbela.com