জনসভা ঘিরে উত্তপ্ত রাজশাহী, ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া

জনসভাকে কেন্দ্র করে রাজশাহীতে দুই গ্রুপের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া।
জনসভাকে কেন্দ্র করে রাজশাহীতে দুই গ্রুপের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া।

রাজশাহীতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আগমন এবং জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ আয়োজিত বিশাল জনসভাকে কেন্দ্র করে রাজনীতির মাঠ উত্তপ্ত ও অশান্তের পাঁয়তারা করা হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ছাড়াও ‘অনুপ্রবেশকারীরা’ দলের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টি এবং তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে হাতাহাতি ও ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে।

আজ বুধবার বেলা ১১টার দিকে পুঠিয়া উপজেলার বানেশ্বরে এ ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, প্রধানমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষে গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় প্রস্তুতি সভার আয়োজন করে পুঠিয়া উপজেলার বানেশ্বর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ। সভা চলাকালে বানেশ্বচরের খুটিপাড়া এলাকার সাহাবুদ্দিন ও নামাজগ্রাম এলাকার আবুল কালাম গ্রুপের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। পরে সভায় উপস্থিত নেতাকর্মীরা পরিস্থিতি শান্ত করে। ওই হাতাহাতির ঘটনাকে কেন্দ্র করে বুধবার বেলা ১১টার দিকে ওই দুই গ্রুপের মধ্যে পুনরায় ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এতে উভয়পক্ষের অন্তত সাতজন আহত হন। আহতদের স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

পুঠিয়া থানার ওসি সোহরাওয়ার্দী হোসেন জানান, স্থানীয় আওয়ামী লীগের দুটি গ্রুপের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছে। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।’

রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. আব্দুল ওয়াদুদ দারা কালবেলাকে বলেন, ‘ঘটনাটি আমি শুনেছি। যতটুকু জানি, দুই গ্রামের দুই ছেলের মধ্যে প্রথমে হাতিহাতির ঘটনা ঘটেছিল। আমি তাদের কাউকে চিনিও না। পরে এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বুধবার সকালে খুটিপাড়া ও নামাজগ্রামের লোকজন বিপরীতমুখী অবস্থান নেয়। পরে শুনেছি, হাতাহাতির ঘটনাও ঘটেছে। এটি একটি ষড়যন্ত্রও হতে পারে। আর যাতে কোনো ধরনের অপ্রীতির ঘটনা না ঘটে সেজন্য আমি নিজে ফোন করেছি, কথা বলেছি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২৯ জানুয়ারি রাজশাহীতে আসছেন। এটি রাজশাহীবাসীর জন্য খুশির খবর হলেও বিএনপি-জামায়াতের জন্য নয়। তারা চাইবে, রাজশাহীর পরিস্থিতি অশান্ত করার। এজন্য অতীতের যে কোনো সময়ের চেয়ে রাজশাহীর সুসংগঠিত আওয়ামী লীগ অতন্ত্র প্রহরীর ন্যায় জাগ্রত রয়েছে। কেউ পরিস্থিতি অশান্ত করার চেষ্টা করলে আমরা কঠোর হস্তে তা দমন করব।’

এ সম্পর্কিত খবর

No stories found.
logo
kalbela.com