রায়পুরে ব্যবসায়ী খুন : স্ত্রী-শাশুড়ির পর কারাগারে ভায়রা

রায়পুর থানা।
রায়পুর থানা।ছবি : কালবেলা

লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে শ্বশুরবাড়িতে মাংস ব্যবসায়ী হারুনুর রশিদ হারুন (৩২) হত্যার ঘটনায় করা মামলার এজাহারভুক্ত আসামি মো. জুয়েলকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। আজ মঙ্গলবার সকালে তাকে গ্রেপ্তার করে লক্ষ্মীপুর আদালতে তোলে পুলিশ।

জুয়েল পশ্চিম লক্ষ্মীপুর গ্রামের ইসমাইল হোসেনের ছেলে। তিনি নিহত হারুনের ভায়রা ছিলেন।

গতকাল সোমবার বিকেলে সদর উপজেলার দালাল বাজার ইউনিয়নের নিজ বাড়ি থেকে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে। পরে আজ সকালে জুয়েলকে লক্ষ্মীপুর আদালতে তোলা হলে বিচারক তাকে কারাগারে পাঠানো নির্দেশ দেন।

রায়পুর থানার ওসি শিপন বড়ুয়া বলেন, ‘হারুন হত্যা মামলার এজাহারভুক্ত আসামি জুয়েলকে গ্রেপ্তার করে আজ সকালে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়। এ মামলায় নিহতের স্ত্রী আমেনা আক্তার বৈশাখী ও শাশুড়ি খুকি বেগমও কারাগারে আছে।’

রায়পুর থানা।
শ্বশুরবাড়ি থেকে যুবকের মরদেহ উদ্ধার, পরিবারের দাবি হত্যা

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, বিয়ের পাঁচ মাসের মাথায় গত ১৬ জানুয়ারি রাত ২টার দিকে রায়পুর উপজেলার চরবংশী গ্রামের শ্বশুরবাড়ি থেকে হারুনের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহতের পরিবার জানায়, হারুনকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করে আসামিরা বাড়ির পাশের বাগানে মরদেহ ঝুলিয়ে রাখেন। পরে হারুনকে হত্যার অভিযোগে ১৭ জানুয়ারি তার বোন জ্যোৎস্না বাদী হয়ে তিনজনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাতপরিচয় চারজনের বিরুদ্ধে রায়পুর থানায় মামলা করেন।

ঘটনার সময় আটক হারুনের স্ত্রী আমেনা আক্তার বৈশাখী ও শাশুড়ি খুকি বেগমকে মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে গত ১৮ জানুয়ারি দুপুরে লক্ষ্মীপুর আদালতে তোলা হয়। আদালত তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

এ সম্পর্কিত খবর

No stories found.
logo
kalbela.com