ডাকাতির প্রস্তুতি ও চোরাই মাল কেনার অভিযোগে গ্রেপ্তার ৯

টঙ্গীতে ডাকাতির প্রস্তুতি এবং চোরাই মালামাল ক্রয়ের অভিযোগে গ্রেপ্তারকৃত ৯ আসামি।
টঙ্গীতে ডাকাতির প্রস্তুতি এবং চোরাই মালামাল ক্রয়ের অভিযোগে গ্রেপ্তারকৃত ৯ আসামি।ছবি : সংগৃহীত

গাজীপুরের টঙ্গীতে ডাকাতির প্রস্তুতি নেওয়ার অভিযোগে দেশীয় অস্ত্রসহ পাঁচ যুবক এবং চোরাই মালামাল কেনা ও সংরক্ষণের অভিযোগে চার যুবককে গ্রেপ্তার করেছে টঙ্গী পশ্চিম থানা পুলিশ।

গতকাল মঙ্গলবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে স্যাটার্ন গার্মেন্টসের সামনে থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। গাজীপুর মহানগর পুলিশের উপপুলিশ কমিশনার অপরাধ (দক্ষিণ) মাহবুব-উজ-জামান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

গ্রেপ্তার আসামিরা হলেন

টঙ্গী পূর্ব থানাধীন এরশাদ নগর এলাকার আব্দুর রহিম (২৫), ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলার সেনবাড়ী গ্রামের মারুফ আহম্মেদ (২০), সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার মাটিকাটা গ্রামের আকাশ (১৯), গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার তারাপুর গ্রামের পাভেল (১৯) এবং গাজীপুর মহানগরের গাছা থানাধীন কুনিয়াপাচর এলাকার মিরাজ আহম্মেদ (২৫)।

ওই সময় তাদের কাছ থেকে একটি ছুরি, দুটি সুইচগিয়ার এবং দুটি চাকু জব্দ করা হয়।  

টঙ্গী পশ্চিম থানার ওসি শাহ আলম জানান, পুলিশ গোপন সংবাদে জানতে পারে দেশীয় অস্ত্রসহ কয়েকজন যুবক ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছেন। পরে টঙ্গী পশ্চিম থানাধীন ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের পশ্চিমে স্যাটার্ন গার্মেন্টস এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তাদের স্বীকারোক্তির ভিত্তিতে চোরাই মালামাল কেনা ও সংরক্ষণে রাখার অভিযোগে মহানগরের কুনিয়া তারগাছ এলাকার তানজিল আহম্মেদ (১৮), জামালপুর সদর উপজেলার বোয়াল ময়পাল গ্রামের সোহেল রানা (৩২), ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার সিমরাই গ্রামের উজ্জল মিয়া (২১) ও নরসিংদী সদর উপজেলার বাউসিয়া গ্রামের জিয়াউর রহমানকে (৩২) গ্রেপ্তার করা হয়।

ওই সময় তাদের ৫ থেকে ৬ জন সহযোগী পালিয়ে যায়। তাদের কাছ থেকে ৩০টি মোবাইল, একটি ল্যাপটপ, একটি ডেক্সটপ ও একটি সিপিইউ উদ্ধার করা হয়।     

গ্রেপ্তার আসামিরা দীর্ঘদিন ধরে টঙ্গীর বিভিন্ন এলাকায় পথচারীদের অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে মোবাইল, টাকা, স্বর্ণলঙ্কার ও মূল্যবান জিনিসপত্র লুট করতেন।

পলাতক আসামিদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তার অভিযান অব্যাহত আছে। গ্রেপ্তার ও পলাতক আসামিদের বিরুদ্ধে টঙ্গী পশ্চিম থানায় মামলা করে আজ বুধবার দুপুরে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

এ সম্পর্কিত খবর

No stories found.
kalbela.com