ফরিদপুরে বিএনপির গণসমাবেশ : নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তারের অভিযোগ

সংবাদ সম্মেলনে কথা বলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক শামা ওবায়েদ ইসলাম।
সংবাদ সম্মেলনে কথা বলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক শামা ওবায়েদ ইসলাম।ছবি : কালবেলা

ফরিদপুরের বিএনপির বিভাগীয় গণসমাবেশ ১২ নভেম্বর। এ লক্ষ্যে নেতাকর্মীদের মধ্যে পুলিশ গ্রেপ্তার আতঙ্ক সৃষ্টি করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। আজ বুধবার দুপুরে ফরিদপুর প্রেস ক্লাবে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলন থেকে এ দাবি করেন নেতারা।

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও ফরিদপুর বিভাগীয় গণসমাবেশের প্রধান সমন্বয়কারী ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন বলেন, এরই মধ্যে ফরিদপুরের বিভিন্ন স্থান থেকে মোট নয়জন নেতাকর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। এর মাধ্যমে নেতাকর্মীদের মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টি করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন তিনি। এ ছাড়া কয়েকজন নেতাকর্মীর বাড়িতে হামলা হয়েছে বলে অভিযোগ করা হয়।

ফরিদপুর বিভাগীয় গণসমাবেশের সমন্বয়কারী ও বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক শামা ওবায়েদ ইসলাম বলেন, ‘বিএনপির কোনো নেতাকর্মী উচ্ছৃঙ্খল আচরণ করেননি। বিনা উসকানিতে পুলিশ বিএনপি নেতাকর্মীদের ওপর হামলা চালাচ্ছে।’

হামলা বা গ্রেপ্তার করে সমাবেশকে বাধাগ্রস্ত করার চেষ্টা করা হচ্ছে উল্লেখ করে সংবাদ সম্মেলনে নেতৃবৃন্দ বলেন, গ্রেপ্তার করে বিএনপির মহাসমাবেশ বাধাগ্রস্ত করা যাবে না। সব বাধা উপেক্ষা করে ১২ নভেম্বর গণসমাবেশে মানুষের ঢল নামবে।

সংবাদ সম্মেলনে কথা বলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক শামা ওবায়েদ ইসলাম।
ফরিদপুরে বিএনপির বড় প্রস্তুতি

সংবাদ সম্মেলনে কেন্দ্রীয় কৃষক দলের সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম বাবুল, সহসাংগঠনিক সম্পাদক খন্দকার মাশুকুর রহমান মাসুক, মো. সেলিমুজ্জামান সেলিম, সাবেক এমপি খন্দকার নাসিরুল ইসলাম, মহিলা দলের যুগ্ম সম্পাদক চৌধুরী নায়াব ইউসুফ, যুবদলের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সহসভাপতি মাহবুবুল হাসান ভুঁইয়া পিংকু উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদ সম্মেলনে কথা বলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক শামা ওবায়েদ ইসলাম।
ফরিদপুরে বাস ধর্মঘটের আলটিমেটাম

এ সম্পর্কিত খবর

No stories found.
kalbela.com