সাতক্ষীরায় ঐতিহ্যবাহী গুড়পুকুর মেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন

বেলুন উড়িয়ে ঐতিহ্যবাহী গুড়পুকুর মেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন সাতক্ষীরা সদর-২ আসনের সংসদ সদস্য মীর মোস্তাক আহমেদ রবি।
বেলুন উড়িয়ে ঐতিহ্যবাহী গুড়পুকুর মেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন সাতক্ষীরা সদর-২ আসনের সংসদ সদস্য মীর মোস্তাক আহমেদ রবি।ছবি : কালবেলা

ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা ও জাঁকজমকপূর্ণভাবে সাতক্ষীরার ৩০০ বছরের ঐতিহ্যবাহী গুড়পুকুর মেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়। জেলা প্রশাসন ও সাতক্ষীরা পৌরসভার আয়োজনে আজ মঙ্গলবার বেলা ১১টায় সাতক্ষীরা শহীদ আব্দুর রাজ্জাক পার্কে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হুমায়ুন কবিরের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে আনুষ্ঠানিকভাবে ফিতা কেটে , বেলুন-ফেস্টুন উড়িয়ে এ মেলার উদ্বোধন করেন সাতক্ষীরা সদর-২ আসনের সংসদ সদস্য নৌ-কমান্ডো বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর মোস্তাক আহমেদ রবি।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে এমপি রবি বলেন, ‘দীর্ঘ ২ বছর পর ব্যাপক পরিসরে এই ঐতিহ্যবাহী গুড়পুকুরের মেলাটি উদ্বোধন করতে পেরে আমি খুবই আনন্দিত। এই মেলাটি আমাদের ঐতিহ্য বহন করে চলেছে। আমরা ছোটবেলা থেকে এ মেলা দেখে আসছি। আগে এই মেলাটি শহরজুড়ে হতো। দেশি-বিদেশি বহু মানুষের আনাগোনা হতো এই মেলায়। গুড়পুকুর মেলার আজকের এই উদ্বোধন দেখে মনে হচ্ছে আগের রূপে ফিরে এসেছে গুড়পুকুর মেলা।’

এ সময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মো. সজীব খান, সাতক্ষীরা পৌর মেয়র তাজকিন আহমেদ চিশতি, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) কাজী আরিফুর রহমান, মেলা কমিটির চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা মানিক শিকদার, জেলা শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক শেখ মুসফিকুর রহমান মিল্টনসহ নগরীর বিভিন্ন কাউন্সিলর, পৌর আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

প্রাথমিক পর্যায়ে মাসব্যাপী চলা এ মেলায় শহীদ আব্দুর রাজ্জাক পার্কের পুরো জায়গাজুড়ে থাকছে প্রায় ২০০টি মনোহারি পণ্যের স্টল। রয়েছে নাগরদোলা, ঘোড়ার গাড়ি। এ ছাড়া লৌহজাতদ্রব্য, বাঁশ ও বেত, নার্সারি, শিল্পকলা একাডেমির সামনে রেলগাড়ি, নৌকা, শহীদ আব্দুর রাজ্জাক পার্কের মধ্যে বিভিন্ন প্রকার মিষ্টির দোকান। রয়েছে শিশুসহ নানা বয়সী মানুষদের জন্য বিনোদন ব্যবস্থা।

এবারের মেলায় জুয়া, হাউজি, লটারি, র‍্যাফেল ড্র, লাকি কুপন, চরকি, নগ্ননৃত্য এবং অননুমোদিত যাত্রাগান, পুতুল নাচ বন্ধ থাকবে।

উল্লেখ্য, ২০০২ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর মেলা চলাকালে সার্কাস প্যান্ডেলে এবং সাতক্ষীরার রকসি সিনেমা হলে জঙ্গিরা বোমা হামলা চালায়। বোমা হামলায় নিহত হয় তিনজন। আহত হয় অর্ধশতাধিক। এর পর থেকে মেলায় বহিরাগত ব্যবসায়ীদের আসা অনেকটা কমে যায়। করোনাপরবর্তী সময়ে দীর্ঘ ২ বছর পর মেলা জাঁকজমকপূর্ণভাবে উদ্বোধন করা হলো।

এ সম্পর্কিত খবর

No stories found.
kalbela.com