পুলিশের হাতের কবজি কাটা সেই কবির গ্রেপ্তার

দুর্গম পাহাড়ে লুকিয়ে ছিল পুলিশের হাতের কবজি কাটা কবির
মো. কবির আহমদ
মো. কবির আহমদছবি: কালবেলা

পুলিশ সদস্যের হাতের কবজি কেটে পালিয়ে যাওয়া সেই সন্ত্রাসী কবিরকে এক সহযোগীসহ গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। বৃহস্পতিবার (১৯ মে) রাতে চট্টগ্রামের লোহাগাড়ার পাহাড়ি এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব সদর দপ্তরের গোয়েন্দা শাখা ও র‌্যাব-৭ এর একটি আভিযানিক দল।

র‍্যাব ও সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, গত ১৫ মে সকালে চট্টগ্রামের লোহাগড়া থানার একটি মামলার আসামি কবির আহমদকে গ্রেপ্তারের উদ্দেশ্যে অভিযান চালায় পুলিশের একটি আভিযানিক দল। পুলিশ এর উপস্থিতি টের পেয়ে কবির অস্ত্রসহ ইউনিফর্ম পরিহিত পুলিশ সদস্যদের উপর চড়াও হয়।

প্রথমে সে তার বাসা শনাক্তকারী ব্যক্তিকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে। পরবর্তীতে পুলিশ সদস্য জনি তাকে বাধা দিলে কবির তার হাতে থাকা ধারালো অস্ত্র দিয়ে জনিকেও সজোরে আঘাত করে বাম হাতের কব্জি বিচ্ছিন্ন করে দেয়। এসময় ঘটনাস্থলে থাকা অন্য পুলিশ সদস্য শাহাদত হোসেনকে শরীরের বিভিন্ন স্থানে এলোপাতাড়ি আঘাত করে পালিয়ে যায়।

পরে উপস্থিত অন্যান্য পুলিশ সদস্য ও স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় আহত পুলিশ সদস্যদেরকে লোহাগড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়। প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে পুলিশ সদস্য জনিকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরবর্তীতে তার অবস্থার অবনতি হলে মূমুর্ষ অবস্থায় উন্নত চিকিৎসার জন্য র‌্যাবের হেলিকপ্টার যোগে ঢাকায় পাঠানো হয় এবং পরে রাজধানীর মোহাম্মদপুরের আল মানার হাসপাতালে তাকে ভর্তি করা হয়।

গত ১৬ মে ডা. সাজেদুল রেজা ফারুকী দীর্ঘ ৯ ঘণ্টা ৪০ মিনিটের সফল অস্ত্রপচারের মাধ্যমে বিচ্ছিন্ন কবজি জোড়া লাগাতে সক্ষম হয়। এই ঘটনায় লোহাগড়া থানায় একটি হত্যাচেষ্টা মামলা দায়ের করা হয়।

যেভাবে গ্রেপ্তার কবির
র‍্যাব জানায়, বৃহস্পতিবার রাতে র‌্যাব সদর দপ্তরের গোয়েন্দা শাখা ও র‌্যাব-৭ এর একটি আভিযানিক দল চট্টগ্রামের লোহাগাড়া থানার বড় হাতিয়ার গহীন পাহাড়ি এলাকা অভিযান চালিয়ে মো. কবির আহমদ (৪৩) এবং তার সহযোগী মো. কফিল উদ্দিন (৩০) গ্রেপ্তার করে। অভিযানের সময় র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে গুলি চালায় কবির। এতে একজন র‌্যাব সদস্য আহত হয়। এসময় আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি ছোড়ে র‌্যাব। পরে ঘটনাস্থল থেকে কবিরকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করা হয়।

অভিযানে জব্দ করা হয় পুলিশ সদস্যদেরকে জখমে ব্যবহৃত একটি দা, একটি ওয়ান শুটার গান, তিন রাউন্ড গুলির খোসা, তিন রাউন্ড তাজা গুলি, দুটি হাসুয়া, একটি ছুরি, ১৮০ পিস ইয়াবা, দুটি মোবাইল ও দুটি সীম কার্ড।

র‍্যাবের লিগ্যাল এন্ড মিডিয়া উইং এর পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন জানান, ঘটনার পর কবির তার সহযোগী কফিলকে নিয়ে বান্দরবান এর দক্ষিণ হাংগর এলাকার একটি দূর্গম পাহাড়ে আত্মগোপন করে। এরপর সেখানে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর উপস্থিতি আঁচ করতে পেরে গ্রেপ্তারকৃত কবির তার সহযোগীসহ দ্রুত অবস্থান পরিবর্তন করে পুনরায় লোহাগাড়া থানার বড় হাতিয়ার গহীন পাহাড়ি এলাকায় অবস্থান নেয়। সর্বশেষ গতকাল র‌্যাব-৭ এর অভিযানে তারা গ্রেপ্তার হয়।

র‍্যাবের এই কর্মকর্তা জানায়, গ্রেপ্তারকৃত কবির স্থানীয় এলাকার একজন চিহ্নিত অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী ও মাদক ব্যবসায়ী। সে দীর্ঘদিন যাবত এলাকায় জমি দখল, মারামারিসহ বিভিন্ন সন্ত্রাসী কার্যক্রম করে আসছে। কেউ তার সন্ত্রাসী কার্যকলাপে বাধা দিলে তার উপর সশস্ত্র হামলা চালিয়ে এলাকায় ত্রাস সৃষ্টি করত। তার নামে বিভিন্ন থানায় হত্যাচেষ্টা ও মারামারির মামলাসহ ছয়টি মামলা রয়েছে।

এ সম্পর্কিত খবর

No stories found.
kalbela.com