নোয়াখালীতে স্কুলছাত্রীর গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার, আটক ১

নিহত তাসনিয়া হোসেন অদিতা
নিহত তাসনিয়া হোসেন অদিতা

নোয়াখালী সদর উপজেলায় তাসনিয়া হোসেন অদিতা (১৪) নামের এক স্কুলছাত্রীর গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় মো. সাঈদ (২০) নামে এক যুবককে আটক করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় নোয়াখালী পৌরসভার ৩ নম্বর ওয়ার্ডের লক্ষ্মীনারায়ণপুর গ্রামের আবুল খায়ের পেশকারের বাসা থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। নিহত তাসনিয়া হোসেন অদিতা আবুল খায়ের পেশকারের নাতনি ও মৃত রিয়াজ হোসেনের মেয়ে। তিনি নোয়াখালী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী ছিলেন।

নিহতের মা জয়নাল আবেদীন মেমোরিয়াল একাডেমির শিক্ষক রাজিয়া সুলতানা রুবি কালবেলাকে বলেন, বাসায় অদিতা একাই ছিল। সন্ধ্যার পর স্কুল থেকে বাসায় এসে বাহিরে থেকে তালা দেওয়া পান। জানালার কাঁচ ভেঙে খাটের উপর অর্ধনগ্ন মেয়েকে গলাকাটা ও হাতের রগকাটা অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেন।

তিনি দাবি করেন, এলাকার চিহ্নিত কিশোরগ্যাংয়ের এক সদস্য তাকে প্রায়ই উত্যক্ত করতো। এমনকি ধর্ষণেরও হুমকি দিত। বাড়িতে একা পেয়ে সেই আমার মেয়েকে হত্যা করতে পারে। পুলিশকে তার নাম বলা হয়েছে।

বাড়ির লোকজন জানান, কিছুদিন আগে অদিতার বাবা রিয়াজ হোসেন সাউথ আফ্রিকায় মারা যান। অদিতার বড় বোন প্রতিবন্ধী। দুই মেয়েকে নিয়ে শিক্ষকতা করে জীবনযাপন করতেন রাজিয়া সুলতানা রুবি।

নোয়াখালী পুলিশ সুপার মো. শহীদুল ইসলাম কালবেলাকে বলেন, খবর পেয়ে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হচ্ছে। এ ঘটনায় মো. সাঈদ (২০) নামে সন্দেহভাজন একজনকে আটক করা হয়েছে। ঘটনাস্থলে পুলিশ, ডিবি, পিবিআই, সিআইডি যৌথভাবে কাজ করছে।

এ সম্পর্কিত খবর

No stories found.
kalbela.com