কুষ্টিয়ায় দুই শিশু সন্তানকে হত্যা, বাবার যাবজ্জীবন

দণ্ডপ্রাপ্ত বাবা আব্দুল মালেক
দণ্ডপ্রাপ্ত বাবা আব্দুল মালেকছবি: কালবেলা

কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা লালনশাহ ব্রীজের ওপর থেকে নিজ শিশু সন্তানকে পদ্মা নদীতে ফেলে হত্যার দায়ে বাবা আব্দুল মালেককে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একইসঙ্গে ২৫ হাজার টাকা অর্থদণ্ড অনাদায়ে আরও তিন মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ডাদেশ দেন আদালত ।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ ২য় আদালতের বিচারক  রেজাউল করিম আসামীর উপস্থিতিতে এই রায় ঘোষণা করেন। দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি আব্দুল মালেক ভেড়ামারা উপজেলার বাহিরচর ১২ দাগ এলাকার আ. সামাদের ছেলে।

আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০১২ সালের ১৭ আগস্ট সকালে দশ বছর বয়সী মুন্নী খাতুন এবং পাঁচ বছর বয়সী মুনসুরকে ভেড়ামারা ফেরীঘাট এলাকায় সেলুনে চুল কাটানোর কথা বলে বাড়ী থেকে নিয়ে যান বাবা আব্দুল মালেক। এরপর ঈশ্বরদীগামী একটি নছিমন গাড়ীতে উঠে লালনশাহ সেতুর মাঝখানে প্রথমে মেয়ে শিশু মুন্নী খাতুন, পরে ছেলে মুনসুরকে পদ্মা নদীতে ফেলে হত্যা করেন।

ঘটনার পরদিন শিশুদের মা মমতাজ খাতুন বাদী হয়ে স্বামীর বিরুদ্ধে ভেড়ামারা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

এ সম্পর্কিত খবর

No stories found.
kalbela.com