কর্মচারীকে মারধর : ইউএনওর বিরুদ্ধে তদন্ত কমিটি

বগুড়ার সদর উপজেলার ইউএনও সমর কুমার পাল।
বগুড়ার সদর উপজেলার ইউএনও সমর কুমার পাল।ছবি : সংগৃহীত

এলজিইডির চতুর্থ শ্রেণির এক কর্মচারীকে পেটানোর অভিযোগে বগুড়ার সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সমর কুমার পালের বিরুদ্ধে তদন্ত কমিটি গঠন করেছে জেলা প্রশাসন। গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় এই কমিটি গঠন করা হয়।

বগুড়ার অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট (এডিএম) সালাহউদ্দিন আহমেদকে কমিটির প্রধান করা হয়েছে। তবে কমিটিকে সময় বেঁধে দেওয়া হয়নি।

ঘটনার তদন্ত করে দ্রুত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তদন্তে কর্মচারীকে নির্যাতনের সত্যতা পাওয়া গেলে ইউএনওর বিরুদ্ধে বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
জিয়াউল হক, জেলা প্রশাসক, বগুড়া

বগুড়ার জেলা প্রশাসক জিয়াউল হক বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, বিষয়টি তদন্ত করে দ্রুত সময়ের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তদন্তে কর্মচারীকে নির্যাতনের সত্যতা পাওয়া গেলে ইউএনওর বিরুদ্ধে বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মারধরের স্বীকার ওই কর্মচারীর নাম আলমগীর হোসেন শেখ (৪৫)। তিনি উপজেলার স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর কার্যালয়ের নৈশপ্রহরী। বর্তমানে তিনি চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

বগুড়ার সদর উপজেলার ইউএনও সমর কুমার পাল।
কর্মচারীকে পেটালেন ইউএনও

আলমগীর জানিয়েছেন, পারিবারিক বিষয় নিয়ে স্ত্রীর সঙ্গে তার ঝগড়া হয়। এর জেরে ইউএনওর কাছে স্ত্রী মৌখিক অভিযোগ করেন।

গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় রাতে ডিউটি পালন করতে গেলে ইউএনও আনসার সদস্যদের দিয়ে তাকে ধরে নিয়ে যান। তারপর দোতলায় ইউএনওর কার্যালয়ের অন্ধকার কক্ষে নিয়ে দরজা বন্ধ করে দেন। সেখানেই মেঝেতে ফেলে লাঠি দিয়ে পেটান ইউএনও।

পরে রাত সাড়ে ৮টার দিকে আলমগীরকে উপজেলা পরিষদ চত্বর থেকে অজ্ঞান অবস্থায় উদ্ধার করে শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এ সম্পর্কিত খবর

No stories found.
kalbela.com