ইজিবাইক ছিনতাই করতে চালককে হত্যা, ৭ দিনে রহস্য উদ্ঘাটন

হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত গ্রেপ্তার পাঁচজন।
হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত গ্রেপ্তার পাঁচজন।ছবি : কালবেলা

নারায়ণগঞ্জের বন্দরে চালক ফেরদৌস হাসানকে (২১) গলাকেটে হত্যা করে ইজিবাইক ছিনিয়ে নেওয়ার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেপ্তার এবং হত্যার রহস্য উদ্ঘাটন করেছে পুলিশ।

সাত দিনের মধ্যে পুলিশ এ হত্যার রহস্য ও হত্যার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেপ্তারে সক্ষম হলো। হত্যায় ব্যবহৃত ছোরা এবং ছিনিয়ে নেওয়া ইজিবাইক উদ্ধার করা হয়েছে। হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত পাঁচজনকে দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তাররা হলো রকিব, তার ভাই রাজিব, বন্ধু শিপলু, সাইদুল ইসলাম ও ইব্রাহিম মাঝি। গত ১১ সেপ্টেম্বর বিকালে ইজিবাইক নিয়ে বেরিয়ে নিখোঁজ হন ফেরদৌস। পর দিন ১২ সেপ্টেম্বর তার গলাকাটা লাশ উদ্ধার করা হয় কলাগাছিয়া ইউনিয়নের দিঘলদী এলাকার একটি মাঠ থেকে।

বন্দর থানার ওসি দীপন চন্দ্র সাহা বলেন, হত্যার দুই দিন পর গত ১৪ সেপ্টেম্বর হত্যার মূল পরিকল্পনাকারী ফেরদৌসের গ্যারেজের মিস্ত্রির সহকারী মো. রকিবকে (২১) গ্রেপ্তার করা হয়। তার দেখানো মতে, গত ১৫ সেপ্টেম্বর ঘটনাস্থলের পাশের একটি ডোবা থেকে হত্যায় ব্যবহৃত একটি ছোরা উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় ১৫ সেপ্টেম্বর রকিব নারায়ণগঞ্জে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান এবং হত্যায় জড়িত অন্যদের নাম প্রকাশ করে।

গত ১৭ সেপ্টেম্বর রকিবের দেওয়া তথ্যে হত্যায় জড়িত তার বন্ধু শিপলুকে এবং গত ১৮ সেপ্টেম্বর রকিবের ভাই রাজিবকে ফেনী থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের দেওয়া তথ্যে মুন্সীগঞ্জের কাটাখালী বাজারে অভিযান চালিয়ে মুজিবুর শেখের গ্যারেজ থেকে মো. সাইদুল ইসলাম ও ইব্রাহিম মাঝিকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের কাছ থেকে ফেরদৌসের ইজিবাইকটি উদ্ধার করা হয়।

এ সম্পর্কিত খবর

No stories found.
kalbela.com