বিশেষায়িত হাসপাতালে রিজভীর চিকিৎসার দাবি বিএনপির

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।
বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। ছবি : সংগৃহীত

কারাগারে গুরুতর অসুস্থ দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীকে অবিলম্বে উন্নত চিকিৎসার জন্য কারাগারের বাইরে বিশেষায়িত কোনো হাসপাতালে চিকিৎসার দাবি জানিয়েছে বিএনপি। দলের ভারপ্রাপ্ত দপ্তর সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স আজ মঙ্গলবার রাতে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক জরুরি সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানান।

কারাগারে রুহুল কবির রিজভী গুরুতর অসুস্থ হওয়ার সংবাদে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে প্রিন্স বলেন, অবিলম্বে তার উন্নত চিকিৎসার জন্য কারাগারের বাইরে বিশেষায়িত কোনো হাসপাতালে হস্তান্তর করার ও নিঃশর্ত মুক্তির জোর দাবি জানাচ্ছি। অন্যথায় আল্লাহ না করুন, কোনো অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটলে এর দায়ভার সরকারকেই নিতে হবে। একইসঙ্গে কারাগারে তার বিষয়ে স্পষ্ট করার জন্য সরকারের কাছে দাবি জানাচ্ছি।

এমরান সালেহ প্রিন্স বলেন, আমরা গভীর উদ্বেগ এবং উৎকণ্ঠার সাথে জানাচ্ছি যে, কারাবন্দি রিজভী গত দুদিন ধরে মারাত্মক অসুস্থ। আমরা জানতে পেরেছি, তিনি বর্তমানে কারা হাসপাতালে দুদিন যাবৎ চিকিৎসাধীন এবং কোনো খাবার খেতে পারছেন না। রুহুল কবির রিজভীর স্ত্রী আরজুমান আরা আমাদের জানিয়েছেন, তিনিও এ বিষয়ে বারবার যোগাযোগ করে কোনো কিছু জানতে পারছেন না।

এর আগে রিজভী কারাগারে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। জানিয়েছিলেন তার স্ত্রী আরজুমান আরা আইভী। তিনি জানান, রিজভী কারাগারে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। গতকাল সোমবার দুপুরে তিনি পেটে প্রচণ্ড ব্যথা অনুভব করেন। সঙ্গে বমিও হয়েছে। পরে তাকে কারাগারের ভেতরে কারা হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে বলে জেনেছেন।

আজ মঙ্গলবার এক জরুরি সংবাদ সম্মেলন করে বিএনপি।
আজ মঙ্গলবার এক জরুরি সংবাদ সম্মেলন করে বিএনপি।ছবি : সংগৃহীত

আজ মঙ্গলবার সন্ধ্যায় কালবেলাকে তিনি বলেন, ‘আমি গতকাল সোমবার কারা গেটে গিয়েছিলাম কিছু বই দিতে। সে সময় কিছুই জানতে পারিনি।’

রিজভীর স্ত্রী আরও জানান, স্বৈরাচার এরশাদবিরোধী আন্দোলনের সময় রুহুল কবির রিজভী পেটে গুলিবিদ্ধ হয়ে গুরুতর আহত হয়েছিলেন। তখন দেশে ও পরে বিদেশে তার পেটে অস্ত্রোপচার হয়। এরপর মাঝেমধ্যে তার পেটে সমস্যা হতো। সেই থেকে প্রায় ৩০ বছর ধরে রিজভী হাতের স্পর্শে খাবার খান না। খোলা পানিও খান না।

চিকিৎসকের পরামর্শে বোতলজাত পানি পান করতে হয় ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি রিজভীকে। তিনি পানির বোতল পাঠিয়েছেন কারাগারে। কিন্তু রিজভীকে খেতে দেওয়া হচ্ছে কি না তা জানেন না। অনতিবিলম্বে রুহুল কবির রিজভীকে নিঃশর্ত মুক্তি দিয়ে উন্নত ও সুচিকিৎসার দাবি জানান তার স্ত্রী আরজুমান আরা।

এ সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডা. রফিকুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবদুস সালাম আজাদ, সহ-প্রচার সম্পাদক শামীমুর রহমান শামীম, মৎস্যজীবী দলের মো. আবদুর রহিম, স্বেচ্ছাসেবক দলের ডা. জাহেদুল কবির জাহিদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এ সম্পর্কিত খবর

No stories found.
logo
kalbela.com