সুইডেনে কোরআন পোড়ানোর প্রতিবাদে ছাত্রশিবিরের বিক্ষোভ

সুইডেনে কোরআন পোড়ানোর প্রতিবাদে ছাত্রশিবিরের বিক্ষোভ

সুইডেনে তুর্কি দূতাবাসের সামনে মুসলমানদের ধর্মীয় গ্রন্থ কোরআন শরিফ পোড়ানোর প্রতিবাদে ঢাকাসহ সারা দেশে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবিরের বিভিন্ন শাখা। মিছিলোত্তর সমাবেশে শিবির নেতৃবৃন্দ বলেন, সারা বিশ্বে মুসলমানদের নিয়ে গভীর ষড়যন্ত্র চলছে। মুসলমানদের ওপর গণহত্যা, দখল, নির্যাতন, লুটপাট চালানোর সঙ্গে সঙ্গে তথাকথিত সভ্য দেশগুলো মুসলমানদের কলিজায় আঘাত দিয়ে যাচ্ছে। তারই অংশ হিসেবে সুইডেনে রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় উগ্রবাদীদের দ্বারা কোরআন পোড়ানো হয়েছে—যা মুসলমানদের প্রতি চরম ধৃষ্টতা। এই গর্হিত কাজ কোনোভাবেই মত প্রকাশের স্বাধীনতা হতে পারে না; বরং মত প্রকাশের স্বাধীনতার আড়ালে পরিকল্পিতভাবে মুসলমানদের পবিত্র মূল্যবোধকে অবমাননা করা হয়েছে।

তারা বলেন, এসব দেশ নিজেদের সভ্য বলে দাবি করে এবং অন্য দেশকে মানবাধিকারসহ নানা বিষয়ে ছবক দেয়। কিন্তু পৃথিবীর প্রায় ২০০ কোটি মুসলমানদের প্রাণের চেয়ে প্রিয় কোরআন পুড়িয়ে, মুসলমানদের কলিজা দগ্ধ করে সুইডেন কোন সভ্যতার পরিচয় দিচ্ছে—তা বিশ্বের শান্তিকামী ও বিবেকসম্পন্ন মানুষের বোধগম্য নয়।

এর আগে ২০২০ সালে সুইডেনে একই কাজ করেছিল উগ্রপন্থিরা। কিন্তু সুইডেন সরকার বা জাতিসংঘ কেউ-ই তার বিরুদ্ধে কার্যকর ব্যবস্থা নেয়নি। ফলে একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি হয়েছে। সুতরাং নিজেদের মর্যাদা, অধিকার ও মূল্যবোধকে টিকিয়ে রাখতে মুসলমানদেরকেই দ্রুত কার্যকর ব্যবস্থা নিতে হবে। কোরআনে অগ্নিসংযোগকারীদের গ্রেপ্তার ও সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত এবং এমন ন্যক্কারজনক ঘটনার পুনরাবৃত্তি রোধে সুইডেন সরকারের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি। একই সঙ্গে ওআইসি, আরবলীগ, জাতিসংঘসহ বিশ্বের বিবেকবান সব মানুষকে এহেন ঘৃণ্য কর্ম বন্ধে কার্যকর উদ্যোগ গ্রহণের আহ্বান জানানো হয়।

সারা দেশে বিক্ষোভ কর্মসূচির অংশ হিসেবে পৃথকভাবে মিছিল করেছে ঢাকা মহানগর উত্তর, দক্ষিণ, পশ্চিম, কুমিল্লা মহানগর, বরিশাল মহানগর, খুলনা মহানগর, ময়মনসিংহ মহানগর, চট্টগ্রাম মহানগর দক্ষিণ, ভোলা শহর, দিনাজপুর শহর, নীলফামারী শহর, সিরাজগঞ্জ শহর, ঠাকুরগাঁও শহর, কক্সবাজার জেলা, পঞ্চগড় জেলা, নোয়াখালী জেলা দক্ষিণ শাখাসহ বিভিন্ন শাখা।

সুইডেনে কোরআন পোড়ানোর প্রতিবাদে ছাত্রশিবিরের বিক্ষোভ
নিজেকে ঈসা নবী দাবি করে গির্জায় কোরআন রেখে আসা যুবক গ্রেপ্তার

এ সম্পর্কিত খবর

No stories found.
logo
kalbela.com