আ. লীগ নেতাকর্মীদের ভুলের জন্য ক্ষমা চাইলেন হুইপ স্বপন

সোনাইমুড়ি উপজেলা আ. লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন হুইপ আল মাহমুদ স্বপন
সোনাইমুড়ি উপজেলা আ. লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন হুইপ আল মাহমুদ স্বপন ছবি: কালবেলা

আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও জাতীয় সংসদের হুইপ আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন জনগণের নিকট ক্ষমা চেয়েছেন। আজ বৃহস্পতিবার নোয়াখালীর সোনাইমুড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির ভাষণে তিনি ক্ষমা চান।

আওয়ামী লীগ মনোনীত সংসদ সদস্য, উপজেলা চেয়ারম্যান, মেয়র, ইউনিয়ন চেয়ারম্যান বা নেতাকর্মীদের ভুল অথবা আচরণগত কারনে কেউ কোন কষ্ট পেয়ে থাকলে জনগণের নিকট নিঃশর্তভাবে ক্ষমা প্রার্থনা করে স্বপন বলেন, আমরা মানুষ, আমরা বাঙালি। বাঙালির চরিত্রে যত গুণাবলী আছে সেগুলো আমাদেরও আছে, বাঙালির যত দোষ আছে তাও আমাদের আছে। আমরা ফেরেশতাও না, শয়তানও না। ফেরেশতা ভুল করেও মন্দ কাজ করতে পারেন না, শয়তান ভুল করেও ভাল কিছু করতে পারে না। মানুষ মাত্রই ভুল হয়। আমরাও ভুলের ঊর্ধ্বে নয়।

আওয়ামী লীগের মত ঐতিহ্যবাহী- সংগ্রামী দলেও কিছু মন্দ মানুষ আছে। দুই চারজনের কারনে আমাদের শাস্তি দেবেন না। আমাদের ওপর অভিমান করলে দেশের প্রতি শাস্তি প্রদান করা হবে। আওয়ামী লীগের আন্তরিকতা ও একাগ্রতার কোন ঘাটতি নেই। দলগত হিসেবে আওয়ামী লীগ বাঙালির সবচেয়ে আপন রাজনৈতিক দল। বাংলাদেশ যে স্বপ্ন দেখে, আওয়ামী লীগ সেই স্বপ্ন সম্ভব করে।

আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও জাতীয় সংসদের হুইপ

তিনি বলেন, ১৯৪৫ সালে সমাপ্ত ২য় বিশ্বযুদ্ধের পর সমগ্র পৃথিবীর মানব জাতির ওপর সম্মিলিতভাবে বর্তমানের মত কোন অভিশাপ নেমে আসেনি। করোনার চরম অভিঘাত এবং বর্তমান ইউক্রেন- রাশিয়া যুদ্ধ, স্যাংশন-পাল্টা স্যাংশনের কারনে সমগ্র মানব জাতির ওপর মহাসঙ্কট নেমে এসেছে। বাংলাদেশও এই সঙ্কটের মহাপ্লাবনে আক্রান্ত। বর্তমান সঙ্কট মোকাবেলার জন্য বিশ্বের অন্যতম সিনিয়র, অভিজ্ঞ, মানবহিতৈষী ও দেশপ্রেমিক রাষ্ট্রনেতা শেখ হাসিনার কোন বিকল্প নেই। সুতরাং দেশবাসীর প্রতি অনুরোধ করছি, আমাদের জনপ্রতিনিধিবৃন্দ ও নেতাকর্মীদের ভুলত্রুটি ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখে আগামী নির্বাচনে অনুগ্রহপূর্বক নৌকা মার্কায় ভোট দিন।

দীর্ঘ ১৯ বছর পর সোনাইমুড়ি মডেল উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে অনুষ্ঠিত উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনের উদ্বোধন করেন নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক অধ্যক্ষ আনম খায়রুল আনম চৌধুরী সেলিম। উপজেলা সভাপতি মমিনুল ইসলম বাকেরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত প্রথম অধিবেশনে বক্তব্য রাখেন বীর মুক্তিযোদ্ধা মাহমুদুর রহমান বেলায়েত, মোরশেদ আলম, এম এইচ ইব্রাহিম, শিহাব উদ্দিন শাহীন, সহিদুল্লাহ খান সোহেল, খন্দকার রুহুল আমিন,  আফম বাবুল বাবু, নিজাম উদ্দিন সুজন প্রমুখ।

সম্মেলনের দ্বিতীয় অধিবেশনে সর্বসম্মতিক্রমে সাবেক সভাপতি মমিনুল ইসলাম বাকের সভাপতি এবং সাবেক সাধারন সম্পাদক আফম বাবুল বাবু পুনরায় সাধারন সম্পাদক নির্বাচিত হন।

এ সম্পর্কিত খবর

No stories found.
kalbela.com