পাঠ্যপুস্তকে বিকৃত ইতিহাস জাতির ধ্বংস ডেকে আনবে : আহলে সুন্নাত

বুধবার সকালে আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাআত বাংলাদেশের উদ্যোগে জাতীয় প্রেস ক্লাবে জহুর হোসেন চৌধুরী হলে গোলটেবিল আলোচনা অনুষ্ঠান হয়।
বুধবার সকালে আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাআত বাংলাদেশের উদ্যোগে জাতীয় প্রেস ক্লাবে জহুর হোসেন চৌধুরী হলে গোলটেবিল আলোচনা অনুষ্ঠান হয়।ছবি : কালবেলা

পাঠ্যপুস্তকে ইসলামবিরোধী বিকৃত ইতিহাস জাতির ধ্বংস ডেকে আনবে বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের মহাসচিব অধ্যক্ষ স উ ম আবদুস সামাদ। তিনি বলেন, ‘ধর্মীয় বিদ্বেষ ছড়ানোর জন্য একটি গোষ্ঠী পাঠ্যপুস্তকে বিকৃত ইতিহাস, কাল্পনিক ছবি, আশরাফুল মাখলুকাত মানুষকে বানর থেকে সৃষ্টি এবং অপ্রাসঙ্গিক বিষয়ের অবতারণা জাতিকে চরমভাবে বিভ্রান্ত করছে।’

আজ বুধবার সকালে আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাআত বাংলাদেশের উদ্যোগে জাতীয় প্রেস ক্লাবে জহুর হোসেন চৌধুরী হলে গোলটেবিল আলোচনায় তিনি এসব কথা বলেন। অধ্যক্ষ মাওলানা আবদুল আলিম রেজভীর সভাপতিত্বে ‘পাঠ্যপুস্তকে ভুল : একটি পর্যালোচনা’ শীর্ষক গোলটেবিল বৈঠকে মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন আহলে সুন্নাতের নির্বাহী মহাসচিব মুফতি আল্লামা আবুল কাশেম মুহাম্মদ ফজলুল হক।

গোলটেবিলে আলোচক ছিলেন—কলামিস্ট শাইখ উসমান গনী, আহলে সুন্নাতের প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দ মুজাফফর আহমদ মুজাদ্দেদী, কাজী সমিতির যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট কাজী মুহাম্মদ ইসলাম উদ্দিন দুলাল, আইনজীবী এডভোকেট হেলাল উদ্দিন, মাওলানা মুহাম্মদ আখতার ফারুক, মুক্তিযোদ্ধা কাজী আবু জাফর টিপু, ইঞ্জিনিয়ার শামসুজ্জামান কাজল, অ্যাডভোকেট মুহাম্মদ ইকবাল হাসান, অ্যাডভোকেট সৈয়দ মুখতার আহমদ সিদ্দিকী, অধ্যক্ষ আবু নাসের মুসা, মুহাম্মদ ইমরান হুসাইন তুষার, অ্যাডভোকেট আবুল কালাম আজাদ, শাফায়াত উল্লাহ, রেহানে মুস্তফা, মুহিব উল্লাহ সিদ্দিকীসহ অনেকে।

বুধবার সকালে আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাআত বাংলাদেশের উদ্যোগে জাতীয় প্রেস ক্লাবে জহুর হোসেন চৌধুরী হলে গোলটেবিল আলোচনা অনুষ্ঠান হয়।
‘ইসলামী শিক্ষার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র দেশের মানুষ মেনে নেবে না’

আলোচকরা বলেন, স্বাধীন সার্বভৌম এবং সংখ্যাগরিষ্ঠ মুসলিম দেশে ভিনদেশি ধর্ম আমদানির ষড়যন্ত্র কখনো ভালো কিছু বয়ে আনবে না। বরং দেশকে ধ্বংস এবং অকার্যকর রাষ্ট্রে পরিণত করবে। পারিবারিকভাবে ধর্মীয় অনুশাসনকে বিলুপ্ত করতে পারলে নৈতিকতা শূন্য হলে সামাজিক ও রাষ্ট্রীয় পর্যায়ে প্রভাব পড়বে।

সভাপতির বক্তব্যে অধ্যক্ষ আবদুল আলিম রেজভী বলেন, ‘আমরা নীতিবান ব্যক্তি তৈরি করতে চাই। দেশকে নৈতিকতা বলিষ্ঠে পরিণত করতে হলে অনুশাসনের বিকল্প নেই।’ তিনি অবিলম্বে সরকারের পক্ষ থেকে করা কমিটিতে বিজ্ঞ ওলামায়ে কেরামদের সম্পৃক্ত করার আহ্বান জানান।

বুধবার সকালে আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাআত বাংলাদেশের উদ্যোগে জাতীয় প্রেস ক্লাবে জহুর হোসেন চৌধুরী হলে গোলটেবিল আলোচনা অনুষ্ঠান হয়।
বর্তমান শিক্ষা সিলেবাস চলতে পারে না : ইসলামী আন্দোলন

গোলটেবিল বৈঠকে ৮ দাবি পেশ করা হয়

১. বিবর্তনবাদের মতো কোরআনবিরোধী কুফরি তথ্য শিখে শিক্ষার্থীদের ধর্মান্তরিত হওয়ার সুগম হবে

২. ট্রান্সজেন্ডারের মতো ঘৃণিত পদ্ধতির প্রতি শিক্ষার্থীরা আকৃষ্ট হবে

৩. মুসলিম শিক্ষার্থীরা ইসলামের মৌলিক বিষয় তৌহিদ শিক্ষার পরিবর্তে বিভিন্ন বিভিন্ন দেব-দেবীর পূজার প্রতি আকৃষ্ট ও বহু ঈশ্বরবাদী হয়ে উঠবে

৪. ইসলামি পরিভাষার পরিবর্তে দেব-দুর্গা ইত্যাদি পরিভাষাগুলো মুসলিম শিক্ষার্থীদের কাছে জনপ্রিয় হয়ে উঠবে এবং ভবিষ্যতে তারা ইসলাম বিমুখ হবে

৫. ইসলাম ও মুসলিম রাজা-বাদশাদের ব্যাপারে ঘৃণা তৈরি হবে এবং বিকৃত ইতিহাস শিখবে

৬. ইসলাম ধর্মে নিষিদ্ধ এমন বাদ্যযন্ত্রের প্রতি মুসলিম শিক্ষার্থীদের আকৃষ্ট হবে

৭. পর্দা, টুপি ও দাড়ির মতো ইসলাম ধর্মীয় বিষয়গুলোর প্রতি শিক্ষার্থীদের ঘৃণা তৈরি হবে

৮. শান্তিপূর্ণ এই বাংলাদেশে উগ্রবাদী মানুষের ধর্মীয় সেন্টিমেন্টকে কাজে লাগিয়ে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা তৈরি করার পথ সুগম হবে

এ সম্পর্কিত খবর

No stories found.
logo
kalbela.com