গণতান্ত্রিক আন্দোলনের মাইলফলক একটি দিন

গণতান্ত্রিক আন্দোলনের মাইলফলক একটি দিন
ছবি : দিনু আলম

শহীদ নূর হোসেন দিবস আজ। দেশের গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের আন্দোলন-সংগ্রামে এক অবিস্মরণীয় দিন। ১৯৮৭ সালের এই দিনে স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনে শহীদ হন নূর হোসেন। তবে তার আত্মত্যাগের বিনিময়ে অর্জিত গণতন্ত্র আজও প্রাতিষ্ঠানিক রূপ পায়নি। এখনো প্রতিনিয়ত গণতন্ত্রের জন্য সংগ্রাম করতে হচ্ছে। শাসকরা গণতন্ত্রকে নিজেদের স্বার্থে ব্যবহার করছেন বলে মনে করেন বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতারা। দিবসটি উপলক্ষে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের পক্ষ থেকে গণমাধ্যমে পাঠানো বিবৃতিতে নেতারা এসব কথা বলেন।

দিবসটি উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক বাণী দিয়েছেন। আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) সভাপতি কমরেড মোহাম্মদ শাহ আলম ও সাধারণ সম্পাদক কমরেড রুহিন হোসেন প্রিন্স গণমাধ্যমে বিবৃতি দিয়েছেন।

দিবসটি উপলক্ষে আজ সকাল ৮টায় রাজধানীর শহীদ নূর হোসেন স্কয়ার (জিরো পয়েন্ট) এবং পরে মুক্তিভবনের সিপিবির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে শহীদ সৈয়দ আমিনুল হুদা টিটোর প্রতিকৃতিতে সিপিবির পক্ষ থেকে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হবে। বিএনপি, ওয়ার্কার্স পার্টি, জাসদ, গণফোরাম, গণতন্ত্রী পার্টিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, সামাজিক সংগঠনের পক্ষ থেকে দিবসটি পালন করা হবে। ১৯৮৭ সালের এই দিনে বুকে-পিঠে ‘গণতন্ত্র মুক্তি পাক, স্বৈরাচার নীপাত যাক’ স্লোগান ধারণ করে তৎকালীন স্বৈরশাসক হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের শাসন ব্যবস্থার বিরুদ্ধে রাজপথে আন্দোলন করতে গিয়ে পুলিশের গুলিতে শহীদ হন নূর হোসেন। তার রক্তদানের মধ্য দিয়ে তৎকালীন স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলন আরও বেগবান হয় এবং অব্যাহত লড়াই-সংগ্রামের মধ্য দিয়ে ১৯৯০ সালের ৬ ডিসেম্বর স্বৈরশাসকের পতন ঘটে।

গণতান্ত্রিক আন্দোলনের মাইলফলক একটি দিন
বিলুপ্তির পথে ২০ দলীয় জোট ও ঐক্যফ্রন্ট

উন্মুক্ত নূর হোসেনের ঐতিহাসিক ছবি

ঐতিহাসিক ছবিটি সর্বসাধারণের জন্য উন্মুক্ত করেছেন আলোকচিত্রী দিনু আলম। যে কেউ ছবিগুলো ডাউনলোড করে ব্যবহার করতে পারবেন, তবে ব্যবহৃত আলোকচিত্রীর নাম উল্লেখ করতে হবে।

গতকাল বুধবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের তফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া হলে আয়োজিত প্রখ্যাত স্থির চিত্রগ্রাহক দিনু আলমের ‘ফটোগ্রাফিক ডকুমেন্ট ১০ নভেম্বর ১৯৯৭’ অনুষ্ঠানে এ ঘোষণা দেওয়া হয়।কানাডাপ্রবাসী আলোকচিত্রী দিনু আলম বলেন, ১৯৮৭ সালের ১০ নভেম্বর আমি মোট ৩৫টি ছবি তুলেছিলাম।

এ সম্পর্কিত খবর

No stories found.
kalbela.com