নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক প্রতিবাদ দিবস পালন

নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক প্রতিবাদ দিবস পালন

শুক্রবার ছিল ‘নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক প্রতিবাদ দিবস’। এ বছর ৪৬টি সংগঠনের সমন্বয়ে গঠিত ‘নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক প্রতিবাদ দিবস উদযাপন কমিটি’র উদ্যোগে ‘বাতাস ছুটুক! তুফান উঠুক! দমব না, থামব না’- এই প্রতিপাদ্য নিয়ে দিবসটি পালন করা হয়।

ঢাকাসহ দেশব্যাপী সহযোগী সংগঠন ও নারী সংগঠনগুলোর জাতীয় নেটওয়ার্ক ফাউন্ডেশনের (দুর্বার) মাধ্যমে মোট ৬০টি জেলায় দিবসটি বিভিন্ন সময়ে পালন করা হয়েছে। নারীপক্ষ কার্যালয়ের সামনে বিকেল ৫টায় জমায়েত হয়ে সূর্যাস্তের পর মশাল মিছিল শুরু হয়। মশাল মিছিলটি সাত মসজিদ রাস্তা দিয়ে সংসদ ভবনের সামনে গিয়ে শেষ হয়। অনুষ্ঠানে প্রতীকী লাঠি খেলা, শ্লোগান ও প্রচারপত্র বিতরণ করা হয়। ঘোষণাপত্র পাঠ করেন নারীপক্ষ’র সদস্য আফসানা চৌধুরী।

এ সময় সরকার ও জাতীয় সংসদের কাছে কিছু দাবি তুলে ধরা হয়- নারীর ওপর যে কোনো ধরনের সহিংসতা সংক্রান্ত সব ধরনের আইন বাস্তবায়নের অগ্রগতি নিয়মিত পরিবীক্ষণ ও প্রতিবন্ধকতাগুলো দূর করতে যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ।

নারীর ওপর সহিংসতার ঘটনা তদন্তের সঙ্গে সম্পৃক্ত পুলিশ, চিকিৎসক-সেবিকাসহ সংশ্লিষ্ট প্রত্যেকের জবাবদিহিতা নিশ্চিত করা। থানা, হাসপাতাল ও আদালতকে নারীর প্রতি মর্যাদাসম্পন্ন দৃষ্টিভঙ্গি এবং আচরণ তৈরির লক্ষ্যে প্রশিক্ষণ প্রদানসহ সুনির্দিষ্ট পদক্ষেপ গ্রহণ করা। পাঠ্যসূচিতে নারীর প্রতি অসম্মানজনক ও বৈষম্যমূলক বিষয় এবং ভাষা ও শব্দ বাতিল করা।

নারীর ওপর সহিংসতা প্রতিরোধ ও প্রতিকার করতে প্রচলিত দুর্বল বা ত্রুটিপূর্ণ আইনের সংস্কার এবং যুগোপযোগী নতুন আইন দ্রুত প্রণয়ন করা। প্রচলিত আইনে সহিংসতার শিকার নারীর প্রতি বৈষম্যমূলক বিধানগুলো অনতিবিলম্বে বাতিল করা এবং নারীর প্রতি অসম্মানজনক শব্দ-বাক্য প্রয়োগসংবলিত রাষ্ট্রীয় দলিল-দস্তাবেজ সংশোধন করার জন্য দ্রুত কার্যকর পদক্ষেপ নেওয়ার দাবিও তোলা হয়।

এ সম্পর্কিত খবর

No stories found.
kalbela.com