শিল্পে গ্যাস সংকট থাকবে না

শিল্পে গ্যাস সংকট থাকবে না
প্রতীকী ছবি।

দেশের শিল্পকারখানাগুলোতে বিদ্যমান গ্যাসের সংকট আগামী জানুয়ারি থেকে আর থাকবে না বলে জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি।

গতকাল বৃহস্পতিবার সিরামিক এক্সপো বাংলাদেশ-২০২২ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এমন তথ্য দেন।

রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় আয়োজিত অনুষ্ঠানে বাণিজ্যমন্ত্রী জানান, বৈশ্বিক পরিস্থিতির কারণে দেশে গ্যাস সংকটের সৃষ্টি। তার প্রভাব পড়েছে উৎপাদনমুখী শিল্পকারখানাগুলোতে। গ্যাসের সমস্যার কারণে অনেক কারখানাতেই উৎপাদন ব্যাহত হচ্ছে। গ্যাসনির্ভর সিরামিক শিল্পে এ সমস্যা আরও বেশি। তবে এ সমস্যা সাময়িক। ধীরে ধীরে পরিস্থিতির উন্নতি হচ্ছে। আশা করা যায়, আগামী জানুয়ারি থেকে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হবে।

বাংলাদেশ সিরামিক ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিসিএমইএ) সভাপতি মো. সিরাজুল ইসলাম মোল্লার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এক্সপোর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন এফবিসিসিআইর সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট মোস্তফা আজাদ চৌধুরী বাবু, বিসিএমইএর সেক্রেটারি জেনারেল এরফান উদ্দিন প্রমুখ।

এ সময় খাত-সংশ্লিষ্ট বিষয়ে গুরুত্ব আরোপ করে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, সিরামিক শিল্প বাংলাদেশের সম্ভাবনাময় একটি খাত। বর্তমানে প্রায় ৭০টি কারখানা রয়েছে। উৎপাদিত হওয়া সিরামিক পণ্য চাহিদার ৮৫ ভাগ পূরণ করছে। প্রায় ৫ লাখ মানুষ সিরামিক শিল্পের সঙ্গে জড়িত। আর উৎপাদন বৃদ্ধি প্রায় ২০০ শতাংশ। দেশে-বিদেশে সিরামিক পণ্যের চাহিদাও বাড়ছে। ইতোমধ্যে ৫০টি দেশের এক বিলিয়ন ডলার পরিমাণ সিরামিক পণ্য রপ্তানি হচ্ছে। রপ্তানি বৃদ্ধি করতে যে সব সমস্যা রয়েছে, সেগুলো নিয়ে আমরা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে আলাপ করব। সমস্যাগুলো চিহ্নিত করে দ্রুত তা সমাধানের উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে।

সংগঠনের সভাপতি মো. সিরাজুল ইসলাম মোল্লা বলেন, দেশে ইতোমধ্যে সিরামিক, টেবিলওয়্যার, টাইলস ও স্যানিটারিওয়্যার শিল্পে প্রায় ১৫ হাজার কোটি টাকার অধিক বিনিয়োগ রয়েছে। স্থানীয় বাজারে পণ্য বিক্রয়ের পরিমাণ বার্ষিক প্রায় ৭ হাজার কোটি টাকা। গত দশ বছরে বিনিয়োগ বেড়েছে প্রায় ২০ শতাংশ। বছরে রপ্তানি আয় প্রায় ৫০০ কোটি টাকা।

সাধারণ সম্পাদক ইরফান উদ্দিন বলেন, উন্নত গুণগতমান ও আকর্ষণীয় ডিজাইনের কারণে বিশ্ববাজারে বাংলাদেশে তৈরি সিরামিক পণ্যের কদর বাড়ছে। একই সঙ্গে নতুন নতুন বাজারও সৃষ্টি হচ্ছে।

তিন দিনব্যাপী এ প্রদর্শনী দর্শনার্থী, ক্রেতা-বিক্রেতাসহ সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত। মেলার প্রিন্সিপাল স্পন্সর হিসেবে রয়েছে আকিজ সিরামিকস, প্লাটিনাম স্পন্সরস শেলটেক সিরামিকস ও ডিবিএল সিরামিকস এবং কো-স্পন্সরস হিসেবে থাকছে মীর সিরামিক, আবুল খায়ের সিরামিক, বিএইচএল সিরামিক, এইচএলটি ডিএলটি টেকনোলোজি ও সাকমি। ওয়েম কমিউনিকেশনের সার্বিক ব্যবস্থাপনায় এক্সপোতে ৩ দিনে থাকছে পাঁচটি সেমিনার, জব ফেয়ার, বিটুবি এবং বিটুসি মিটিং, র‌্যাফেল ড্র, আকর্ষণীয় গিফট, লাইভ ডেমোনেস্ট্রেশন, স্পট অর্ডার এবং নতুন পণ্যের মোড়ক উন্মোচনের সুযোগ।

এ সম্পর্কিত খবর

No stories found.
kalbela.com