সাকিব শুভেচ্ছাদূত থাকবেন কি না, খতিয়ে দেখছে দুদক

সাকিব আল হাসান।
সাকিব আল হাসান।ছবি : সংগৃহীত

ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) শুভেচ্ছাদূত থাকবেন কি না, এ বিষয়ে খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন দুদক সচিব মো. মাহবুব হোসেন। আজ মঙ্গলবার সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন। এ ছাড়া সাকিবের বিষয়ে যে কোনো সিদ্ধান্তের জন্য অপেক্ষা করতে বলেন তিনি।

জুয়াড়ি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তির রেশ কাটতে না কাটতেই এবার শেয়ারবাজার কারসাজিতে বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি ও টেস্ট দলের অধিনায়ক সাকিবের নাম উঠেছে।

সাকিব আল হাসান।
শেয়ার কারসাজিতে জড়ালেন বিএসইসির শুভেচ্ছাদূত সাকিব আল হাসান

দুদক সচিব বলেন, ‘২০১৮ সালে সাকিব আল হাসানের সঙ্গে দুদকের যে চুক্তি হয়েছিল, তা সম্পূর্ণ বিনা পারিশ্রমিকে। এ ছাড়া আমাদের হটলাইন-১০৬ উদ্বোধনকালেও তার সঙ্গে কাজ করা হয়। এরপর দীর্ঘদিন তার সঙ্গে কোনো কার্যক্রম হয়নি।’

তিনি আরও বলেন, ‘অভিযোগ এলেই তো সঙ্গে সঙ্গে কোনো কিছু হয় না। একটু সময় দিন। আপনারা যেটা বললেন সে বিষয়টি প্রয়োজনে কমিশন দেখবে, সেজন্য অপেক্ষা করতে হবে।’

এর আগে কারাতে ফেডারেশনের সভাপতি ও দুদক কমিশনার মোজাম্মেল হক সাংবাদিকদের বলেছিলেন, ‘সাকিবের বিষয়ে এখনই কোনো মন্তব্য করা যাচ্ছে না। আমরা কমিশনে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করব।’

সাকিব আল হাসান।
এবার সাকিবের বাবার নাম নিয়ে বিতর্ক

সম্প্রতি দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) এক অনুসন্ধানে শেয়ারে ব্যাপক কারসাজির ঘটনায় অন্যদের সঙ্গে মোনার্ক হোল্ডিংসের চেয়ারম্যান ও ক্রিকেটার সাকিব আল হাসানের নাম ওঠে আসে। বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) শুভেচ্ছাদূত হওয়ার পর চলতি বছরের জানুয়ারিতে মোনার্ক হোল্ডিংস লিমিটেড নামে একটি ব্রোকারেজ হাউস চালু হয়। সাকিব ওই কোম্পানির চেয়ারম্যান এবং শেয়ারবাজার কেলেঙ্কারিতে আলোচিত আবুল খায়ের হিরুর স্ত্রী কাজী সাদিয়া হাসান এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক।

এ সম্পর্কিত খবর

No stories found.
kalbela.com