ভারপ্রাপ্ত পররাষ্ট্র সচিব রিয়ার অ্যাডমিরাল (অব.) মো. খুরশেদ আলম।
ভারপ্রাপ্ত পররাষ্ট্র সচিব রিয়ার অ্যাডমিরাল (অব.) মো. খুরশেদ আলম। পুরোনো ছবি

উসকানিতে পা দেবে না বাংলাদেশ : ভারপ্রাপ্ত পররাষ্ট্র সচিব

মিয়ানমারের উসকানিতে বাংলাদেশ পা দেবে না বলে জানিয়েছেন ভারপ্রাপ্ত পররাষ্ট্র সচিব রিয়ার অ্যাডমিরাল (অব.) মো. খুরশেদ আলম। আজ মঙ্গলবার রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় যুক্তরাজ্য-যুক্তরাষ্ট্রসহ বিভিন্ন দেশের কূটনীতিকদের বিফ্রিং শেষে এ কথা জানান তিনি।

ভারপ্রাপ্ত পররাষ্ট্র সচিব বলেন, রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন ঠেকাতেই আঞ্চলিক অস্থিতিশীলতা তৈরি করে ফায়দা লুটতে চায় মিয়ানমার। বিদেশি কূটনীতিকদের বিষয়টি জানানো হয়েছে।

উত্তেজনা নিরসনে কূটনৈতিক তৎপরতার পাশাপাশি নেপিদোর সঙ্গে সামরিকসহ সব স্তরে যোগাযোগ রাখছে ঢাকা।

মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশ সীমান্তে বারবার গোলা ও মর্টার শেল আসা, হতাহতের ঘটনায় বাংলাদেশের ধৈর্য ধরা এবং শান্তিপূর্ণ অবস্থানে থাকার বিষয়টি দূতদের ব্রিফ করেন মো. খুরশেদ আলম।

কোনো সন্ত্রাসী গোষ্ঠীকে বাংলাদেশ আশ্রয় দেয়নি, দিচ্ছে না, দেবেও না জানিয়ে মো. খুরশেদ আলম বলেন, কূটনৈতিক তৎপরতার পাশাপাশি নেপিদোর সঙ্গে সামরিকসহ সর্বস্তরে যোগাযোগ রাখছে ঢাকা।

ভারপ্রাপ্ত পররাষ্ট্র সচিব রিয়ার অ্যাডমিরাল (অব.) মো. খুরশেদ আলম।
মিয়ানমার সীমান্তে এখনই সেনা মোতায়েন নয় : ভারপ্রাপ্ত পররাষ্ট্র সচিব

এদিকে সীমান্তে উদ্ভূত পরিস্থিতির জন্য গতকাল সোমবার মিয়ানমার আরাকান আর্মির পাশাপাশি রাখাইনের সশস্ত্র সংগঠন আরসার ওপর দায় চাপিয়েছে দেশটি। তারা জানিয়েছে, বাংলাদেশের সঙ্গে বিদ্যমান সম্পর্ক নষ্ট করার জন্য এ দুপক্ষ মিলে চলমান পরিস্থিতি সৃষ্টি করেছে।

ইয়াঙ্গুনে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মঞ্জুরুল করিম খান চৌধুরীর সঙ্গে আলোচনায় নিজেদের অবস্থান এভাবেই ব্যাখ্যা করেছেন দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা জ ফিউ উইন। মিয়ানমারের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় তাদের ফেসবুক পেজে বৈঠকের বিষয়টি এভাবে তুলে ধরে।

জ ফিউ উইন জানান, বাংলাদেশের অভ্যন্তরে আরাকান আর্মি ও আরসার পরিখা এবং ঘাঁটি রয়েছে। এমন তথ্য গত ৭ সেপ্টেম্বর কূটনৈতিক চ্যানেলের মাধ্যমে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতকে জানিয়েছিল মিয়ানমার। বৈঠকে সে বিষয়টি তুলে ধরেন জ ফিউ উইন ওই ঘাঁটিগুলোর বিষয়ে তদন্তের জন্য দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়া এবং সেগুলো গুঁড়িয়ে দেওয়ার আহ্বান জানান।

ভারপ্রাপ্ত পররাষ্ট্র সচিব রিয়ার অ্যাডমিরাল (অব.) মো. খুরশেদ আলম।
মিয়ানমার একের পর এক উসকানি দিচ্ছে : খায়রুজ্জামান লিটন

Related Stories

No stories found.
kalbela.com