সীমা অক্সিজেন প্লান্টের পরিচালকের কোমরে দড়ি

কোমরে দড়ি ও হ্যান্ডকাফ পরানো অবস্থায় বুধবার আদালতে হাজির করা হয় সীমা গ্রুপের পরিচালক পারভেজ উদ্দিন সান্টুকে।
কোমরে দড়ি ও হ্যান্ডকাফ পরানো অবস্থায় বুধবার আদালতে হাজির করা হয় সীমা গ্রুপের পরিচালক পারভেজ উদ্দিন সান্টুকে।ছবি : কালবেলা

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে সীমা অক্সিজেন প্লান্ট বিস্ফোরণের ঘটনায় সীমা গ্রুপের পরিচালক পারভেজ উদ্দিন সান্টুকে গ্রেপ্তার করেছে শিল্প পুলিশ। গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় চট্টগ্রাম নগরী মুরাদপুর এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। এদিকে গতকাল বুধবার দুপুরে পুলিশ তাকে আদালতে হাজির করে। এ সময় তার কোমরে দড়ি ও হ্যান্ডকাফ পরানো একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়। ছবিটি ছড়িয়ে পড়লে সমালোচনার ঝড় ওঠে।

ছবিতে দেখা যায়, কোমরে দড়ি ও হ্যান্ডকাফ লাগিয়ে সীমা গ্রুপের পরিচালক পারভেজ উদ্দিন সান্টুকে টানতে টানতে আদালতের খাস কামরায় নেওয়া হচ্ছে। ছবিটি ফেসবুক ব্যবহারকারীরা শেয়ার করে এ ধরনের আচরণের নিন্দা করছেন।

সীতাকুণ্ড প্রেস ক্লাবের সভাপতি সৌমিত্র চক্রবর্তী তার ফেসবুক আইডিতে ছবিটি শেয়ার করে লেখেন, প্রতিবাদ জানানোর ভাষা নেই! অশনিসংকেত! ইনি সীমা গ্রুপের পরিচালক পারভেজ উদ্দিন সান্টু। গতকাল তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। এখন তার অবস্থা দেখুন। অপরাধ কী? তার কারখানায় বিস্ফোরণ হয়েছে। বিস্ফোরণ, দুর্ঘটনা কি আর কোথাও হয় না? প্রতিদিন মহাসড়কে দুর্ঘটনা হয় না? উনি তো চুরি করেননি। কোনো খুনও করেননি। ব্যক্তিগতভাবে কোনোদিন তার সঙ্গে আমার কথা হয়নি। শুধু নামটা জানি। আমরাও দুর্ঘটনার নিউজ করেছি। তারা সর্বোচ্চ ক্ষতিপূরণ দিয়েছেন। এর পরও তিনি গ্রেপ্তার হলেন। এখন দেখছি কোমরে দড়ি দিয়ে টেনে নেওয়া হচ্ছে! দৃশ্যটা মোটেও ভালো লাগেনি। সব শিল্পপতিকে বলব, হয় প্রতিষ্ঠান বন্ধ করুন, না হয় এ রকম পরিস্থিতির জন্য প্রস্তুত থাকুন। শিল্পবান্ধব সরকারের আমলে এ কেমন আচরণ? অতি উৎসাহীদের লাগাম টানবে কে? ছি। প্রতিবাদ জানানোরও ভাষা হারিয়েছি।

তার এই পোস্টে সীতাকুণ্ড উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহাদাত হোসেন কমেন্ট করে লেখেন, ছবিটি দেখে জেলা প্রশাসক স্যার নিজেও মর্মাহত হয়েছেন এবং শিল্প পুলিশের পুলিশ সুপারকে ফোন দিয়ে যে বা যারা এই অপকর্মটি করেছে, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে নির্দেশনা দিয়েছেন। পুলিশ সুপার জানিয়েছেন, দুই-একজন অতি উৎসাহী হয়ে কাজটি করেছে, এরই মধ্যে তাদের শোকজ করা হয়েছে এবং তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে।

ফজলে করিম চৌধুরী নিউটন নামে একজন লিখেছেন, প্রতিষ্ঠানে দুর্ঘটনা ঘটতেই পারে। একজন শিল্পপতিকে এভাবে কোমরে দড়ি বেঁধে আদালতে তোলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই। এ বাড়াবাড়িতে সরকারের ভাবমূর্তি নষ্ট হবে।

এ ব্যাপারে চট্টগ্রাম শিল্প পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সোলায়মান কালবেলাকে বলেন, অরুণ কান্তি বিশ্বাস নামে এক সাব-ইন্সপেক্টর নিজের ইচ্ছায় তার কোমরে দড়ি ও হাতে হ্যান্ডকাফ পরিয়েছিল। এরই মধ্যে তাকে শোকজ করা হয়েছে। এ ব্যাপারে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে।

এক দিনের রিমান্ডে : চট্টগ্রাম ব্যুরো জানায়, চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে বিস্ফোরণের ঘটনায় সীমা অক্সিজেন প্লান্টের পরিচালক পারভেজ উদ্দিন সান্টুকে এক দিনের রিমান্ড দিয়েছেন আদালত। গতকাল চট্টগ্রাম চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কামরুন নাহার রুমীর আদালত এ রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

চট্টগ্রাম জেলা কোর্ট পরিদর্শক জাকির হোসাইন মাহমুদ জানিয়েছেন, সীতাকুণ্ডে বিস্ফোরণের ঘটনায় হওয়া মামলার আসামি পারভেজ উদ্দিন। তাকে এ মামলায় পুলিশের পক্ষ থেকে সাত দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়। আদালত শুনানি শেষে এক দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এ সম্পর্কিত খবর

No stories found.
logo
kalbela.com