কমে আসবে কুয়াশা, বাড়বে তাপমাত্রা

কমে আসবে কুয়াশা, বাড়বে তাপমাত্রা
ছবি : সংগৃহীত

শীতের তীব্রতা কমে তাপমাত্রা বাড়ছেই। জানুয়ারির শুরু থেকে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে শৈত্যপ্রবাহ ছিল। তবে মঙ্গলবার আবহাওয়া অধিদপ্তরের পূর্বাভাসে দেশের কোনো স্থানে শৈত্যপ্রবাহের পূর্বাভাস নেই। সংস্থাটি বলছে, আগামী তিন দিনে রাতের তাপমাত্রা আরও বাড়তে পারে। কমে আসবে কুয়াশাও। এখনো দেশের দুটি স্থানে ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে তাপমাত্রা বিরাজ করছে, তবে তা বিচ্ছিন্নভাবে থাকায় এ দুটি স্থানে শৈত্যপ্রবাহ ঘোষণা করেনি সংস্থাটি।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের তথ্যমতে, গতকাল মঙ্গলবার দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায়। হিমালয়ঘেঁষা ওই অঞ্চলে তাপমাত্রা ছিল ৮ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এ ছাড়া শ্রীমঙ্গলে ৯ দশমিক ৭, রাজারহাটে ১০ দশমিক ৫, ফেনীতে ১০ দশমিক ৭, ডিমলায় ১০ দশমিক ৮, বদলগাছীতে ১১ দশমিক ৩, দিনাজপুরে ১১ দশমিক ৪ এবং সৈয়দপুর ও রাঙামাটিতে ১২ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে। দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩০ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে কক্সবাজারে। দেশের বিভিন্ন স্থানের মতো ঢাকাতেও তাপমাত্রা বেড়েছে। গতকাল ঢাকার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৬ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

আবহাওয়াবিদ মো. লতিফুল নেওয়াজ কবির জানান, দেশের দুটি স্টেশনে তাপমাত্রা ১০-এর নিচে আছে। তার পরও শৈত্যপ্রবাহ বলা যাচ্ছে না। রাতের তাপমাত্রা বেড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা আছে। অর্থাৎ তাপমাত্রা বাড়বে।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ সারা দেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে। শেষ রাত থেকে সকাল পর্যন্ত দেশের নদী অববাহিকার কোথাও কোথাও মাঝারি থেকে ঘন কুয়াশা এবং দেশের অন্যত্র কোথাও কোথাও হালকা থেকে মাঝারি ধরনের কুয়াশা পড়তে পারে।

সারা দেশে রাতের তাপমাত্রা সামান্য বৃদ্ধি পেতে পারে এবং দিনের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

এ সম্পর্কিত খবর

No stories found.
logo
kalbela.com