সেমিতে জকোভিচ

সেমিতে জকোভিচ

আর মাত্র দুটি ম্যাচ জিতলেই অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের ১০ নম্বর শিরোপা তুলে ধরবেন নোভাক জকোভিচ। সেইসঙ্গে ২২ গ্র্যান্ডস্লাম জিতে ছুঁয়ে ফেলবেন রাফায়েল নাদালকে। হয়তো এ বছরে তাকে ছাড়িয়েও যাবেন। তবু তার বিস্ময়কর অভিযাত্রা থামবে না। জকোভিচ টেনিসের এমন বিস্ময়কর প্রতিভা, যিনি এক পায়ে খেলে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের সেমিফাইনালে উঠেছেন। হ্যামস্ট্রিংয়ের চোটও তাকে থামাতে পারছে না। কোয়ার্টার ফাইনালেও প্রতিপক্ষকে স্ট্রেট সেটে হারিয়েছেন নোভাক জকোভিচ। পঞ্চম বাছাই রাশিয়ার আন্দ্রে রুবলেভকে ৬-১, ৬-২, ৬-৪ গেমে হারিয়ে উঠেছেন সেমিফাইনালে।

অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে হ্যামস্ট্রিংয়ে চোট পাওয়ায় বাঁ পায়ের ঊরুতে একটি ব্যান্ডেজ বেঁধে খেলছেন জকোভিচ। আগের ম্যাচে অ্যালেক্স ডি’মিনরের বিপক্ষেও ব্যান্ডেজ বেঁধে খেলেছিলেন তিনি। কোর্টে নড়াচড়া করতে কোনো সমস্যা হচ্ছে না তার। কোর্ট কাভারেজ দেখে মনেই হচ্ছে না তার পায়ে ইনজুরি আছে। এতটাই নিখুঁত টেনিস খেলছেন যে, তিন সেটে মাত্র ৭টি গেম জিততে পেরেছেন রুবলেভ। গতকাল ৬-১-এ প্রথম সেট জিতে নেন জকোভিচ। সার্ব তারকার গতি, পাওয়ারফুল সার্ভিসের সামনে দাঁড়াতে পারছিলেন না রুবলেভ। আনফোর্সড এরর করছিলেন। দ্বিতীয় সেটও ৬-২-এ জিতে নেন জকোভিচ। তৃতীয় সেটে খেলার সময় খোঁড়াচ্ছিলেন তিনি। তবু রড লেভার এরেনায় তাকে থামানো যায়নি। নিখুঁত সার্ব করেছেন। উইনার মেরেছেন। শেষ পর্যন্ত তৃতীয় সেট ৬-৪-এ জিতে বছরের প্রথম গ্র্যান্ডস্লামের সেমিফাইনালেও উঠেছেন জকোভিচ। সেমিফাইনালে আমেরিকার টমি পলের বিপক্ষে খেলবেন তিনি।

অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের আগে প্রস্তুতি টুর্নামেন্ট খেলার সময় ঊরুর পেশিতে চোট পেয়েছিলেন জকোভিচ। অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের আগে ডানিল মেদভেদেভের বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচেও পুরো খেলতে পারেননি । কিন্তু মূল পর্বে খেলছেন এবং জিতছেন, যা দেখে কেউ কেউ বলছেন চোটের ভান করছেন জকোভিচ। আসলে তিনি ফিট। যা শুনে সার্ব তারকা বলেন, ‘যারা আমার চোট নিয়ে সন্দেহ করছেন, তাদের সন্দেহ করতে দিন। শুধু আমার চোট নিয়ে প্রশ্ন তোলা হচ্ছে। অন্য খেলোয়াড়রা চোট পেলে তাদেরও এমন ঘটনার শিকার হয়। এখন আমাকে করা হচ্ছে। ব্যাপারটা বেশ মজার। যদিও কাউকে কিছু প্রমাণ করার নেই আমার। কে কী ভাবছে বা বলছে, সেসব নিয়ে আমি একটুও চিন্তিত নই। যেভাবে বর্ণনা করা হচ্ছে, সেটা অন্য খেলোয়াড়দের তুলনায় কিছুটা আলাদা। এ ধরনের ঘটনায় আমি অভ্যস্ত। এসব আমাকে অতিরিক্ত শক্তি দেয়। আরও ভালো খেলার জন্য অনুপ্রাণিত করে। তাই যারা প্রশ্ন তুলছেন, তাদের ধন্যবাদ জানাতে চাই।’ অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের সেমিফাইনালে ওঠার পর গতকাল জকোভিচ বলেছেন, ‘আমি নিখুঁত টেনিস খেলেছি। এ কন্ডিশন এবং কোর্টে আমি খেলতে পছন্দ করি। অস্ট্রেলিয়ান ওপেন আমার কাছে বিশেষ কিছু।

বাতাস ছিল। তাই সেভাবে মানিয়ে নিতে হয়েছে। শট নির্বাচনও সেভাবেই করতে হয়েছে। তবে সব মিলিয়ে আমার মনে হয় প্রথম দুই সেটের ফলে ম্যাচের সত্যিকার প্রতিফলন দেখা যায়নি।’ পুরুষ এককে মঙ্গলবার অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের সেমিফাইনালে উঠেছেন স্টেফানোস সিসিপাস এবং কারেন খাচানভ। নারী এককের সেমিফাইনালে উঠেছেন দুবারের অস্ট্রেলিয়ান ওপেন চ্যাম্পিয়ন ভিক্টোরিয়া আজারেঙ্কা এবং এলেনা রেবাকিনা। ফরাসি ওপেনের ফাইনালে উঠে হেরে যাওয়া সিসিপাস ৬-৩, ৭-৬, ৬-৪ গেমে হারিয়েছেন জিরি লেহেকাকে । ম্যাচের পর বলেন, ‘ভালোই লাগছে নিজের পারফরম্যান্স দেখে। ম্যাচটা একটু অন্য ধরনের ছিল। সমস্যার সমাধান শেষদিকে এসে পেয়েছি।’ ম্যাচের পর খাচানভ বলেছেন, ‘যেভাবে জিততে চেয়েছিলাম সেটা হলো না। তবে যতটুকু খেলেছি, বেশ ভালো লড়াই হয়েছে। আত্মবিশ্বাস বেড়েছে আমার। আপাতত সেমিফাইনালের দিকে তাকিয়ে আছি।’ সেমিফাইনালে সিসিপাস এবং খাচানভ একে অপরের বিপক্ষে খেলবেন।

এদিকে ২০১২ ও ২০১৩ সালে টানা দুবার অস্ট্রেলিয়ান ওপেন জেতা আজারেঙ্কা এবার তৃতীয় শিরোপা জয় থেকে দুই ম্যাচ দূরত্বে দাঁড়িয়ে। জেসিকা পেগুলাকেই ৬-৪, ৬-১ গেমে স্ট্রেট সেটে হারিয়ে সেমিফাইনালে উঠেছেন তিনি। ম্যাচ শেষে বলেন, ‘অনেক র্যালি হয়েছে ম্যাচে। কিন্তু কোনো সময় ম্যাচ হাতের বাইরে বেরিয়ে যেতে দিইনি। নিজের পরিকল্পনার ওপর আস্থা রেখেছি।’ আজারেঙ্কা সেমিফাইনালে খেলবেন রেবাকিনার বিরুদ্ধে। কাজাখস্তানের রেবাকিনা মঙ্গলবার ৬-২, ৬-৪ গেমে হারিয়েছেন সাবেক ফরাসি ওপেন চ্যাম্পিয়ন ইয়েলেনা অস্তাপেঙ্কোকে।

এ সম্পর্কিত খবর

No stories found.
logo
kalbela.com