বিস্ফোরক শনাক্ত করবে পালংশাক!

পালংশাক।
পালংশাক।ছবি : সংগৃহীত

বিস্ফোরক শনাক্ত করতে কুকুর-ইঁদুর ব্যবহারের ইতিহাস আছে। কিন্তু তাই বলে পালংশাক! সম্প্রতি ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজির (এমআইটি) একদল গবেষক দাবি করেছেন, এই সবজিটিরও রয়েছে বিস্ফোরক শনাক্তের ক্ষমতা।

পালংয়ের পাতায় থাকা কার্বন ন্যানোটিউবগুলোই মূলত এই শনাক্তের কাজটি করে। বিস্ফোরক যেখানে থাকতে পারে—এমন জায়গায় পালং পাতা রেখে দিলে এর শরীর থেকে ফ্লুরোসেন্ট সংকেত বের হয়। ইনফ্রারেড ক্যামেরা দিয়ে এই সংকেত সহজেই দেখা যায়। এই পুরো প্রক্রিয়াটি হতে সময় লাগে প্রায় ১০ মিনিটের মতো। স্মার্টফোনের সঙ্গে ইনফ্রারেড ক্যামেরা থাকলে বিস্ফোরক থাকার সংকেতটি তথ্যাকারে ইমেইলেও চলে আসে। এমআইটির অধ্যাপক মাইকেল স্ট্রানো বলেন, ‘আমরা কীভাবে উদ্ভিদ এবং মানুষের মধ্যকার যোগাযোগের বাধা অতিক্রম করেছি, এটি তার একটি অভিনব উদাহরণ। মাটির নিচে উদ্ভিদের এক বিস্তৃত শিকড়ের নেটওয়ার্ক থাকে। প্রকৃতিতে কী হয় তা খুব সহজেই টের পায় তারা। এ-সংক্রান্ত অনেক তথ্যও থাকে তাদের কাছে। আমরা শুধু সেই তথ্য পড়ার চেষ্টা করেছি।’

এ সম্পর্কিত খবর

No stories found.
kalbela.com