প্রসঙ্গ : হরতালের বৈধতা

করণিক আখতার এর ছবি

নিশ্চয়ই, হরতাল, কোনো দলোগণের দলোতান্ত্রিক অধিকার নয়। জনগণের নাম ভাঙ্গিয়ে যখন বিভিন্ন দলোগণ হরতালকে ‘জনগণের গণতান্ত্রিক অধিকার’ বোলে বোলে, বোলচালে হরতালের বৈধতা প্রতিষ্ঠা করতে চাই, আমরা যারা বলি, ‘জনগণ দলে দলে বিভক্ত’, --তারা জনগণকে যেমন চিনি না, তেমনি তারা নিরস্ত্র জনসাধারণের গণরোষ, গণপিটুনি, গণধোলাই ইত্যাদির ভয়াবহতা সম্পর্কে অজ্ঞ এবং অচেতন, আমার মতোই তাদেরও কেবল প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষাটুকুই আছে এবং এর চে’ বেশি জ্ঞান নেই, --সরল বাংলায় যাকে আহাম্মক বলা হয়।

জনগণ কারো পোষ্য নয় যে, নিচুস্তরের কোনো প্রাণীর মতো দল বেঁধে চিৎকার চেঁচামেচি করবে, কিম্বা এমনও নয় যে, বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি ক’রে কারো কাছে কিছু চাইতে পারে, বরং গণতন্ত্রে, যেখানে জনসাধারণ সম-মানে বিচ্ছিন্নভাবে এবং সমন্বিতভাবে রাষ্ট্রের মালিক, যে-কোনো ব্যক্তি ভদ্রভাবে তার চাওয়াটা জনগণের কাছ থেকেই চেয়ে নিতে পারে।

যেকোনো হরতাল কিম্বা দলোসমাবেশ, চিরকালেই, বিপরীতমুখী দলোগণের দলীয় স্বার্থের পাতানো খেলা বা লীলা। ওগুলোর সাথে সতর্ক জনগণের, নিরাপদ দূরত্বে অবস্থান নিয়ে আনন্দ উপভোগ ছাড়া, ভিন্নতর কোনো সংশ্লিষ্টতা নেই। জনজীবনকে অতিষ্ট করার জন্যেই জনপদে দলোগণ পিকেটারগিরি এবং এন্টিপিকেটারগিরির সাজানো খেলাটি এমনভাবেই খেলে যায় যে, কোনো দলোগণের জানমালের কোনো ক্ষতি হয় না, --ক্ষতি হয় কেবল অসতর্ক জনসাধারণের।

রাজতন্ত্রকে কিম্বা যেকোনো ধরণের স্বেচ্ছাতন্ত্রকে হটানোর জন্যে, গোপনে গোপনে গণজাগরণ যেখানে একটি অনিশ্চিত দীর্ঘসূত্রী প্রক্রিয়া, সেক্ষেত্রে জনসাধারণের পিছু-হটা-পিঠ দেয়ালে ঠেকে গেলে, প্রকাশ্য হরতাল কিম্বা গণ-আন্দোলন, খুবই কাজের, --জনসাধারণ চাইলে হাজার বছরের জঞ্জাল দু’সপ্তাহের মধ্যেই সরিয়ে ফেলতে পারে।

গণ-বিপ্লবে কোনোখানে রাজতন্ত্র বিলুপ্ত হলে, সেখানে রাজ্যের যত ক্ষয়ক্ষতি সব-ই রাজার, ধ্বংস হয় কেবল অত্যাচারী রাজার প্রকাশমান সম্পদ। প্রজারাও কিছু হারায়, রাজার প্রজা হিসেবে পরিচিতিটুকু মুছে যায়, রাজার রাজ্যে এ ছাড়া আর কোনো সম্পদও নেই প্রজাদের, যা’ গণ-আন্দোলনে বিলুপ্ত হতে পারে।

রাজতন্ত্রের বিদ্রোহী গান, গণতন্ত্রে বেমানান। যেকোনো ধরণের বিশৃঙ্খল কর্মকাণ্ডে, গণতন্ত্রে, কোনো দলীয় বিশৃঙ্খলাকর্মীর কোনো ক্ষতি নেই, রাষ্ট্রের যত ক্ষয়ক্ষতি সব-ই গণমালিকের এবং জনসাধারণকেই সীমিত সহ্যের সীমা পর্যন্ত ক্ষয়পূরণের ধকল ধৈর্য ধরে সহ্য করে যেতে হয়।

রঙ্গপুর : ৩০/০৪/২০১২

করণিক : আখতার২৩৯

ভোট: 
No votes yet